হলিউড

একদিকে ৫ বিয়ে অন্যদিকে ভয়ঙ্কর হ্যালোইন!

প্রকাশ : ২৫ অক্টোবর ২০১৮ | আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০১৮

একদিকে ৫ বিয়ে অন্যদিকে ভয়ঙ্কর হ্যালোইন!

ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

২৬ অক্টোবর একসঙ্গে দু’টি হলিউডের ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্সে। একটি হলো, নম্রতা সিং গুজরালের পরিচালনায় ‘ফাইভ ওয়েডিংস’। ২৬ অক্টোবর ভারতের পাশাপাশি বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তির মধ্য দিয়ে ছবিটির আন্তর্জাতিক মুক্তি হচ্ছে। অন্যদিকে, গত ১৯ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পাওয়া হরর ছবি ‘হ্যালোইন’ আসছে বাংলাদেশের দর্শকদের সামনে। চার দশক আগে মুক্তি পাওয়া ‘হ্যালোইন’ ছবির সিক্যুয়াল এটি। ডেভিড গর্ডন গ্রিনের পরিচালনায় ছবিটি ইতোমধ্যে বক্স অফিসে সাড়া জাগিয়েছে।

‘ফাইভ ওয়েডিংস’ ছবি হলিউডের। কিন্তু পরিচালক এবং মূল দুই অভিনয়শিল্পী বলিউডের। ভিন্ন ধরনের চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত অভিনেতা রাজকুমার রাও। অন্যদিকে র‌্যাম্পের রানওয়ে থেকে রূপালি পর্দায় নাম লেখানো আলোচিত অভিনেত্রী নার্গিস ফাখরি। 

অন্যদিকে চার দশক পর আবার নতুন করে পর্দায় এসেছে ‘হ্যালোইন’।১৯৭৮ সালে জন কার্পেন্টারের পরিচালনায় প্রথমবারের মতো বড় পর্দায় আসেন সিরিয়াল কিলার মাইকেল মায়ার্স। হ্যালোইনের রাতে এই সিরিয়াল কিলারের টার্গেট ছিল বেবিসিটাররা। মুক্তির পরে বক্স অফিসে ঝড় তোলার পাশাপাশি হরর ঘরানার চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কিংবদন্তির স্বীকৃতি পায় ছবিটি। পরে এর বেশ কয়েকটি সিক্যুয়াল হলেও প্রথমটির নামের মর্যাদা রাখতে পারেনি কোনোটিই। তাই এবার সম্পূর্ণ নতুন রূপে বেবিসিটারদের ঘুম হারাম করতে আসছেন মাইকেল মায়ার্স। ৪০ বছর আগের দুঃস্বপ্ন থেকে রেহাই পাওয়া লরি স্ট্রোড আবারও মুখোমুখি হবে সিরিয়াল কিলারের। শুধু তার জীবনই নয়, আরো অনেকের জীবন রক্ষা করতেই এবার লড়াইটা হবে লরির। লরি স্ট্রোড হিসেবে আবারও পর্দায় আসছেন জেমি লি কার্টিস এবং সিরিয়াল কিলার মাইকেল মায়ার্স চরিত্রে ফের দেখা যাবে নিক ক্যাসেলকে। 

এরইমধ্যে তার প্রত্যাশা পূরণের আভাস দেখা যাচ্ছে। মুক্তির পর থেকে বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছে ছবিঠি দর্শক-সমালোচকদের মতে, এই দশকের সবচেয়ে ভয়ের চলচ্চিত্রটি হতে যাচ্ছে ‘হ্যালোইন’। 


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

মনরোর অ্যাওয়ার্ডের এত দাম!


আরও খবর

হলিউড
মনরোর অ্যাওয়ার্ডের এত দাম!

প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর ২০১৮

মেরিলিন মনরো- ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

বিংশ শতাব্দির লাখো তরুণের স্বপ্নের রানি মেরিলিন মনরো পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেছেন ১৯৬২ সালে। কিন্তু মৃত্যুর অর্ধশতাব্দি পরও ভুবনমোহিনী হাসির অধিকারী এই অভিনেত্রীর আবেদন এতটুকুও কমেনি। 

তারই প্রমাণ মিলল যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার বেভারলি হিলে অনুষ্ঠেয় একটি নিলামে। সেখানে মনরোর জেতা গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ডটি বিক্রি হয়েছে রেকর্ড দামে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের। 

অ্যাওয়ার্ডটি আড়াই লাখ ডলারে বিক্রি হয়েছে বলে জানিয়েছে নিলামকারী প্রতিষ্ঠানটি।

জুলিয়ানস অকশন নামের নিলামকারী প্রতিষ্ঠানটির মালিক ড্যারেন জুলিয়ান জানান, এছাড়াও নিলামে মনরোর ব্যবহৃত ১৯৫৬ সালের দুই আসনের ফোর্ড থান্ডারবার্ড মডেলের গাড়িটি ৪ লাখ ৯০ হাজার ডলারে কিনে নিয়েছেন এক ব্যক্তি।

তিনি জানান, ১৯৬২ সালে অনাকাঙ্খিত মৃত্যুর আগে প্রায় ৬ বছর গাড়িটি ব্যবহার করেছেন হলিউডের এই নারী সুপারস্টার।


সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

চলে গেলেন স্পাইডারম্যান-আয়রনম্যান স্রষ্টা


আরও খবর

হলিউড

স্ট্যান লি

  অনলাইন ডেস্ক

স্পাইডারম্যান, এক্স ম্যান, হাল্ক, আয়রনম্যান, ডক্টর স্ট্রেঞ্জ চরিত্রগুলো বিশ্ব মাতানো। চরিত্রগুলো অগণিত মানুষের পছন্দের তালিকায় রয়েছে। পৃথিবী কাঁপানো এসব চরিত্রের স্রষ্টা মার্কিন কমিক্স বই লেখক ও মার্ভেল কমিক্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট স্ট্যান লি  চলে গেলেন চির বিদায় নিয়ে। সোমবার  শিকাগোর সিনাই মেডিক্যাল সেন্টারে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৯৫ বছর বয়সী স্ট্যান লি।

হলিউড রিপোর্টে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন তার মেয়ে জেসি।  জেসি বলেন, ‘তিনি তার জীবন এবং কাজকে ভালোবেসেছিলেন। তার পরিবার এবং ভক্তরা তাকে ভালোবাসতো। তার স্থান অপূরণীয়।’

তবে স্ট্যান লি’র মৃত্যুর কারণ জানাননি জেসি। জানা গেছে অনেকদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। ছিলো চোখের সমস্যাও। এইসব সমস্যা নিয়ে আর ফিরলেন স্ট্যান লি।

১৯২২ সালে নিউ ইয়র্ক শহরের একটি নিম্নবিত্ত পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন স্ট্যান লি। বাবা জ্যাক লিয়েবার ছিলেন দর্জি। ১৯৬০ সাল থেকে মার্বেল কমিক্স লেখা শুরু হয় স্ট্যান লির। এমনকি প্রচ্ছদ থেকে শুরু করে প্রায় সব কিছুই নিজের হাতে করতেন তিনি। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

অনামিকায় নতুন প্রেমিকের উপহার


আরও খবর

হলিউড

লেডি গাগা

  অনলাইন ডেস্ক

ছিলেন গায়িকা। এখন নায়িকা হিসেবেই পরিচিত তিনি। নানা সময়ে নানা প্রসঙ্গ নিয়ে হলিউড পাড়ায় আলোচিত তিনি। বলছি লেডি গাগার কথা। ক’দিন আগে হলিউড এজেন্ট ক্রিশ্চিয়ান ক্যারিনোর সঙ্গে সম্প্রতি বাগদান সেরেছেন গাগা। গণমাধ্যমে নিজের বাগদানের খবর নিজেই নিশ্চিত করেছিলেন। এবার প্রেমিকের দেওয়া আংটি সামনে আনলেন গাগা। 

সম্প্রতি একটি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের রেড কার্পেটে ধরা দেন তিনি। পরনে ছিল ডি'অরের ব্যালেরিনা গাউন। তবে সব কিছু ছাপিয়ে উপস্থিত সবার নজর গিয়ে পড়ে গাগার অনামিকার উপর।যেখানে একটা বড় গোলাপি হিরের আংটি জ্বলজ্বল করছিল।

লেডি গাগাও আংটি লুকানোর কোনও চেষ্টা করেননি গাগা। বরং এমনভাবে পোজ দিতে শুরু করেন যাতে ভালভাবে আংটিটি দেখা যায়। পরে এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘কারও প্রতি ভালবাসা জাহির করায় বাধা কোথায়?'

সংশ্লিষ্ট খবর