ফুটবল

'তাজিকিস্তানে ভ্রমণের জন্য যাচ্ছি না'

প্রকাশ : ৩১ আগষ্ট ২০১৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

'তাজিকিস্তানে ভ্রমণের জন্য যাচ্ছি না'

ছবি: বাফুফে

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

তার গোলেই বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট কাটে বাংলাদেশ। লাওস-বধের নায়ক রবিউল হাসান এখন আরও আত্মবিশ্বাসী। ১০ সেপ্টেম্বর তাজিকিস্তানের দুশানবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে বেশ রোমাঞ্চিত এ মিডফিল্ডার। তাজিকিস্তানে যাওয়ার আগে গতকাল বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে আত্মবিশ্বাসী রবিউল বলেন, 'আমরা গত ক'দিনে অনেক ভালো ট্রেনিং করেছি। তাজিকিস্তানে আমরা ভ্রমণ বা আনন্দ-ফুর্তি করতে যাচ্ছি না। এটা দলের সবারই জানা। দলের বর্তমান অবস্থা দেখে অন্যদের সঙ্গে আমিও আত্মবিশ্বাস পাচ্ছি। তাজিকিস্তান গিয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভালো কিছু করতে চাই।' বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে গ্রুপ 'ই'-তে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে আগামীকাল ঢাকা ত্যাগ করবে জেমি ডের দল। এই গ্রুপে বাংলাদেশের বাকি প্রতিপক্ষ ওমান, ভারত ও বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার।

উচ্চতায় অনেক এগিয়ে আফগান ফুটবলাররা। তাদের অনেক খেলোয়াড় ইউরোপের বিভিন্ন লীগে খেলেন। প্রতিপক্ষ সম্পর্কে কী ধারণা দিয়েছেন কোচ? 'এখন পর্যন্ত আফগানিস্তান কোন টেকনিক, কী ফরমেশনে খেলে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে তারা কী ট্যাকটিকসে খেলবেন এসব কোচ বলেননি। মূলত এসব বিষয় নিয়ে দেশের বাইরে গিয়েই আলোচনা হবে। ট্রেনিংয়ে সেট পিস থেকে নিয়ে ফুটবলে যা যা প্রয়োজন সব বিষয় নিয়েই কাজ করেছেন কোচ।'

র‌্যাংকিংয়ে আফগানিস্তানের অবস্থান ১৪৯তম। তাদের বিপক্ষে বাংলাদেশ সর্বশেষ খেলেছিল ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে। ওই ম্যাচে ৪-০ গোলে হেরেছিল লাল-সবুজের দলটি। আফগানদের কাছে সেটাই ছিল বাংলাদেশের একমাত্র হার। এ ছাড়া বাকি তিন ম্যাচই হয়েছে ড্র। ফুটবলে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি এগিয়েছে অনেক। উচ্চতায় বেশি হলেও টেকনিকে আফগানদের হারানোর কথা বলেছেন বিপলু আহমেদ, 'উচ্চতাই সবকিছু নয়। টেকনিক ও ট্যাকটিসের ওপর নির্ভর করছে খেলা। এখানে (সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে) আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে খেলেছি। তাদের কয়েকজন ফুটবলার অনেক লম্বা; কিন্তু আমরা তো তাদের হারিয়েছি। আফগানিস্তান দলেও একই রকম খেলোয়াড় আছে। তবে আমরা আমাদের টেকনিক দিয়ে ওদের হারাব।'

বাস্তবে আফগানিস্তানকে হারানো কঠিন। সেটা যেমন স্বীকার করছেন কোচ জেমি, তেমনি করে তাদের বিপক্ষে জিতলে অলৌকিক কিছু হবে না বলেই মনে করেন বাংলাদেশ কোচ, 'দেখুন, ফুটবল এমন একটা খেলা, যেখানে যে কোনো কিছুই ঘটতে পারে। তারা ১১ জন খেলবে আমরাও। প্রতিটি কোচেরই একটা পরিকল্পনা থাকে। সে অনুযায়ী দলের ফুটবলাররা মাঠে খেলতে পারলে সাফল্য আসবেই। সেটি আমাদের ক্ষেত্রে হতে পারে, তাদের ক্ষেত্রেও হতে পারে। আমাদের দল প্রস্তুত, সবাই ফিট আছে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় পেতে আমরা আত্মবিশ্বাসী। যদি আমরা ম্যাচটা জিততে পারি সেটি কোনো অলৌকিক ঘটনা হবে না।'

তাজিকিস্তানে গিয়ে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ৩ সেপ্টেম্বর এফসি কুকটুসের বিপক্ষে প্রথম এবং ৫ সেপ্টেম্বর সিএসকেএ পামিরের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবেন জামাল ভূঁইয়ারা। ২৬ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াড থেকে আজ তিনজনকে বাদ দিয়ে ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করার কথা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের।

মন্তব্য


অন্যান্য