ফুটবল

লাল কার্ড দেখেও নায়ক জেসুস!

প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ০৮ জুলাই ২০১৯

লাল কার্ড দেখেও নায়ক জেসুস!

ছবি-গার্ডিয়ান

  অনলাইন ডেস্ক

ক্লাব পারফরম্যান্স অসাধারণ। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দিলেই কী যেন হয়ে যায় তার। গত বিশ্বকাপে তো সুপার ফ্লপ ছিলেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ক্লাবের পারফরম্যান্সই তাকে আবার জাতীয় দলে জায়গা করে দেয়। এ বছর অবশ্য হলুদ জার্সিতে রীতিমতো অপ্রতিরোধ্য জেসুস। কোপা আমেরিকার ফাইনাল ম্যাচের আগে ৯ ম্যাচে করেছিলেন ৬ গোল। সাত নম্বর গোলটা করলেন পেরুর বিপক্ষে। গোল করালেনও একটা। ম্যাচেই দেখলেন লাল কার্ড। ডাগ আউটে বসে জেসুসের কান্নাটা সবার মন খারাপ করে দিয়েছে। শেষতক ফাইনালের নায়ক জেসুসই।

কোপা আমেরিকার শুরুতে কোচ তিতের পরিকল্পনায় ছিলেন না জেসুস। রিচার্লিসনকে দিয়েই গ্রুপ পর্বে আক্রমণ সাজিয়েছিলেন সেলেসাও কোচ। বলিভিয়ার পর ভেনিজুয়েলার বিপক্ষেও বদলি ফুটবলার হিসেবে নামেন ম্যানচেস্টার সিটির এই উইঙ্গার। ভেনিজুয়েলা ম্যাচের পরই তিতের ধারণা পাল্টে যায়। সেই ম্যাচটা ড্র হলেও জেসুসের খেলা মন ভরিয়ে দের কোচের। পেরুর বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে শুরু থেকেই খেলেন জেসুস।

প্যারাগুয়ের বিপক্ষে চোখধাঁধানো ফুটবল খেলেও গোল পাননি গ্যাব্রিয়েল জেসুস। সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে দেখা মেলে আসল জেসুসের। গোল করেছেন সাথে করিয়েছেনও। ফাইনালেও দেখা গেল করিতকর্মা এক জেসুসকে। ১৫তম মিনিটে ডান প্রান্ত বেশ দূরহ এক পেয়েছিলেন। বাতাসে ভেসে আসা বলটাকে দারুণ দক্ষতায় নিয়ন্ত্রণ করেন। এরপর শরীরটাকে মুচড়িয়ে পেরুর তিন ডিফেন্ডারকে বোকা বানান। এরপর মাখনের মতো এক কোস বাড়ান এভারটনের উদ্দেশ্যে। ব্রাজিল মিডফিল্ডার শুধু বলে পা লাগানোর কাজটিই করেছেন। গোওও……ল। গোল করিয়েই কেন ক্ষান্ত হবেন। ততক্ষণে পেনাল্টি পেয়ে সমতায় ফিরেছে পেরু। বিরতির ঠিক আগে দারুণ এক গোলও করলেন জেসুস।

ম্যাচের ৭৮ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন তিনি। জেসুসের বিপক্ষে সিদ্ধান্তটা একটু কড়া নিয়ে ফেলেছেন রেফারি। মাঠ থেকে বের হয়ে ২২ বছর বয়সী এই উইঙ্গারের কান্নাটা সবার মন খারাপ করিয়ে দেয়। হাত নেড়েচেড়ে জেসুস বোঝাচ্ছিলেন যে তার কোনো দোষ নেই। সেটা সবাই জানে রেফারি বোঝেননি। তাতে অবশ্য ব্রাজিলের কিছু এসে যায়নি। ১২ বছর পর আবার কোপা আমেরিকা ঘরে তুলল দলটি।

দলের মূল প্রাণভোমরা নেইমারকে ছাড়াই কোপা আমেরিকার মিশন শুরু করেছিল ব্রাজিল। নেইমারহীন দলটিই জিতে নিল দক্ষিণ আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্ব। এবার হয়তো কাতার বিশ্বকাপে চোখ তিতের। এখন যে নেইমার আর একা নন।  

মন্তব্য


অন্যান্য