ফুটবল

আর্জেন্টিনার জয় ছাপিয়ে মেসির লাল কার্ড

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ০৭ জুলাই ২০১৯

আর্জেন্টিনার জয় ছাপিয়ে মেসির লাল কার্ড

ছবি: গোল

  অনলাইন ডেস্ক

কোপা আমেরিকার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ। গুরুত্ব একেবারে নেই তা নয়। শেষ দুই আসরে চিলির কাছে হারে আর্জেন্টিনা। কিছু শোধও নেওয়ার সুযোগ। যদিও দুধের স্বাদ ঘোলে মেটার নয়। তারপরও আর্জেন্টিনা দারুণ শুরু করে। ম্যাচের প্রথমার্ধে ২-০ গোলের লিড নেয়। চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতে তৃতীয় অবস্থানে থেকে কোপা শেষ করল। তবে জয় ছাপিয়ে লিওনেল মেসির লাল কার্ড নিয়েই এ ম্যাচে বিতর্ক বেশি।

ম্যাচের ১২ মিনিটের মাথায় মেসির সহায়তায় গোল করেন তার বন্ধু সার্জিও আগুয়েরো। এরপর ম্যাচের ২২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন পাউলো দিবালা। লো চেলসো বড় বাড়ান তাকে। বড় জয়ের দিকেই তখন চোখ আজেন্টিনার। কিন্তু ম্যাচের ৩৭ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন মেসি। চিলির ফুটবলার মেডেলও লাল কার্ড খান। দশ জনের দলে পরিণত হয় দু'দল। ম্যাচের ৫৯ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমান চিলি মিডফিল্ডার আর্তুরো ভিদাল।

মেসি প্রথমার্ধে চিলির ফুটবলারের সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে নামেন। বল সাইড লাইনে চলে যায়। লাইন থেকে ফিরে আসা মেডেলের সঙ্গে মেসির চোখা-চুখি হয়। এরপরই মেসিকে শরীর দিয়ে ধাক্কা দেন মেডেল। মেসি শক্ত চোয়ালে তাকিয়ে থাকলে আরও জোরে ধাক্কা দেন চিলি ফুটবলার। মেসি শরীর দিয়ে ধাক্কা সামাল দেন। এরপর মেডেলের  শরীরে হাত না লাগিয়ে বাহু দিয়ে তাকে থামান।

রেফারি এসে দু'জনকে লাল কার্ড দেন। তবে মেসির দেওয়া লাল কার্ড নিয়ে প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে। রেফারি চাইলে দু'জনকেই হলুদ কার্ড দিতে পারতেন। কিংবা কোপার এমন রঙ ছড়ানো ম্যাচে জল ঢালার আগে ভিএআরের স্মারণাপন্ন হতে পারতেন। কিন্তু তিনি বির্তকিত সিদ্ধান্ত নেন। বাকি সময়টা দুই দল দশ জনের দল নিয়েই খেলে। এর আগে ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচে রেফারিং বিপক্ষে গেছে বলে অভিযোগ করেন মেসি।

মন্তব্য


অন্যান্য