বিনোদন

সম্ভাবনাময় শিল্পীদের পরিচয় করে দিতে চাই: হাবিব

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৯ | আপডেট : ১৪ মার্চ ২০১৯

সম্ভাবনাময় শিল্পীদের পরিচয় করে দিতে চাই: হাবিব

হাবিব ওয়াহিদ

  বিনোদন প্রতিবেদক

হাবিব ওয়াহিদ। তারকা কণ্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক। সম্প্রতি এইচডব্লিউ ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হয়েছে তার একক গান 'আলিঙ্গন'। এ ছাড়াও গতকাল প্রকাশিত হয়েছে তার সঙ্গীতায়োজনে লিজার গাওয়া 'এক যমুনা' গানের ভিডিও। কণ্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালকের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও আত্মপ্রকাশ ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয় তার সঙ্গে।

আবারও মেলো রোমান্টিক গান প্রকাশ করলেন। 'আলিঙ্গন' গানটি নিয়ে কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

ভক্তদের অনেকেই ভালোলাগার কথা জানিয়েছেন। 'আলিঙ্গন' গানের ভিডিওতে যে গল্প তুলে ধরা হয়েছে, সেটাও অনেকের মনে ছাপ ফেলেছে। এ ধরনের মন্তব্য শুনে মনে হয়েছে, যে পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করেছি, তা বৃথা যায়নি। অবশ্য ভক্তদের এই ভালোলাগার পেছনে গীতিকার রক্তিম মীর, মডেল মুনা গাওচান, সিনেমাটোগ্রাফার অ্যারন অশোক কুমারসহ যারা এ কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন সবারই অবদান আছে বলে আমি মনে করি। 

এ সময়ের মিউজিক ভিডিওগুলোয় নানা চরিত্রে নিজেকে তুলে ধরছেন। গানের পাশাপাশি অভিনয়েও আগ্রহী হয়ে উঠেছেন-

অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা কোনোকালেই ছিল না। কিন্তু সময়ের প্রয়োজনে এখন সেই কাজটি করতে হচ্ছে। গানের প্রকাশনা এখন ভিডিওনির্ভর হয়ে যাওয়ার কারণেই প্রতিটি আয়োজন নিয়ে আলাদা করে ভাবতে হচ্ছে। 'মিথ্যা' গানে মানসিক রোগী, 'ঝড়' গানে প্রেমিক মাস্তান, 'আনমনা মন' গানে পর্যটক, 'অবুঝপনা' গানে অসহায় প্রবাসী বাঙালিসহ অন্যান্য গানে নানা চরিত্রে গানের ভিডিওতে নিজেকে তুলে ধরেছি শুধু ভক্তদের ভালোলাগার কথা ভেবে। অভিনেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠার কোনো উদ্দেশ বা ইচ্ছা কোনোটাই ছিল না। 

নিজের গান প্রকাশের জন্য এইচডব্লিউ ইউটিউব চ্যানেল চালু করার কথা বলেছিলেন। কিন্তু এখন অন্যান্য শিল্পীর গানও প্রকাশ করতে দেখা যাচ্ছে, এর কারণ কী? 

এইচডব্লিউ চ্যানেলে শুধু নিজের গাওয়া গানগুলোই প্রকাশ করব- এমন ঘোষণা দিইনি। বলেছিলাম, এই চ্যানেলে নিজের কাজগুলো তুলে ধরব। অনেক দিন ধরে এমন একটি প্লাটফর্মের কথা ভেবেছি, যেখানে নিজের সৃষ্টি আলাদা করে তুলে ধরব। এইচডব্লিউ ইউটিউব চ্যানেল তেমনই একটি প্লাটফর্ম যেখানে আমার সৃষ্টিকর্ম স্থান পাবে। ভবিষ্যতে ভক্তরা যাতে নিশ্চিত হতে পারেন, এই চ্যানেলে হাবিব ওয়াহিদের যত নতুন গান আছে তা শোনা যাবে। তবে নিজের চ্যানেলের বাইরে অন্য কোনো প্রকাশকের জন্য গান করব না- সেটা ভাবলেও ভুল হবে। যে কাজগুলো একান্ত নিজের মতো করে তৈরি করতে পারব, সেগুলো নিজের চ্যানেলে প্রকাশ করব। পড়শীর 'আবাহন' এবং লিজার 'এক যমুনা' গানটির সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা নিজের বলেই এইচডব্লিউ চ্যানেলে প্রকাশ করেছি।

শিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালকের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেন। প্রযোজনায় আসাটা চ্যালেঞ্জিং মনে হয়নি?

চ্যালেঞ্জিং মনে না হওয়ার কোনো কারণ সেই। সত্যিই ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করা কঠিন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালকরা নিজেদের চ্যানেল তৈরি করে গান প্রকাশে সাফল্যের দেখা পেয়েছেন। কিন্তু এ দেশে এখনও সেভাবে বাণিজ্যিক সাফল্য ধরা দেয়নি। তবে সম্ভাবনা যে একেবারে নেই, তা নয়। আমরা যারা গানের প্রযোজনা প্রকাশনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছি, ভবিষ্যতে হয়তো তারা সুদিনের মুখ দেখতে পাব।

গানের প্রযোজনা ও প্রকাশনার ক্ষেত্রে নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি আছে কি?

নিজের সৃষ্টিকর্ম তুলে ধরার পাশাপাশি এইচডব্লিউ চ্যানেলে সম্ভাবনাময় কিছু শিল্পীকে পরিচয় করে দিতে চাই। এ জন্য চ্যালেঞ্জ নিয়েই প্রযোজনায় এসেছি। এ বিষয়ে আমাকে সাহস জোগানোর পাশাপাশি সবরকম সহযোগিতা করছেন আমার বাবা ফেরদৌস ওয়াহিদ। আমি ভাগ্যবান কোনো ভালো কাজে সবসময় তাকে পাশে পাওয়ায়। প্রযোজনার বিষয়ে সাহস ও প্রেরণা দুটোই বাবার কাছ থেকে পাচ্ছি। এ কারণেই লক্ষ্য থেকে কোনোভাবেই পিছিয়ে আসতে চাই না।

আরও পডুন

মন্তব্য


অন্যান্য