বিনোদন

হাসপাতালে শুয়ে পুলিশের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিলেন অহনা

প্রকাশ : ১১ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০১৯

হাসপাতালে শুয়ে পুলিশের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিলেন অহনা

   সমকাল প্রতিবেদক

বেপরোয়া ট্রাকচালকের কবলে পড়ে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত অভিনেত্রী অহনা রহমান ধীরে ধীরে সেরে উঠছেন। তবে শরীরের বিভিন্ন স্থানে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করছেন। তার কোমর ও পিঠে মারাত্মক আঘাত লেগেছে। শুক্রবার তিনি হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে পুলিশের কাছে বর্ণনা করেছেন পুরো ঘটনা। এদিকে শুক্রবার বিকেলে তাকে দেখতে হাসপাতালে যান সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। এ সময় তিনি দায়ী ট্রাকচালককে দ্রুত গ্রেফতারের জন্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি আলী হোসেন সমকালকে বলেন, ট্রাকটির মালিক দুবাই প্রবাসী। তবে তার পক্ষে একজন ট্রাকটির দেখভাল করেন। তাকে থানায় ডেকে নিয়ে কথা বলেছে পুলিশ। জানা গেছে অভিযুক্ত চালকের নাম সুমন। তার গ্রামের বাড়ি পাবনায়। প্রয়োজনীয় আরও কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। শিগগিরই তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে। দুর্ঘটনায় দায়ী ট্রাকটির লাইসেন্স রয়েছে বলেও জানান ওসি।

সংশ্নিষ্টরা জানান, উত্তরার ক্রিসেন্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন অহনা। শুক্রবার বিকেলে সেখানে তাকে দেখতে যান সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী। এ সময় তিনি অহনার চিকিৎসার ব্যাপারে বিস্তারিত খোঁজ নেন। তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজনে সব রকমের সহায়তার আশ্বাস দেন।

বুধবার গভীর রাতে শুটিং স্পট থেকে ব্যক্তিগত গাড়ি চালিয়ে উত্তরার বাসায় ফিরছিলেন অভিনেত্রী অহনা। উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টরে পৌঁছলে একটি ট্রাক তার গাড়িকে ধাক্কা দেয়। এ নিয়ে ট্রাকচালকের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ান তিনি। একপর্যায়ে তিনি গাড়ি থামিয়ে ট্রাকের দরজায় উঠে চালককে নামতে বলেন। তখন হঠাৎ দ্রুতগতিতে ট্রাক চালিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন চালক। আর অহনা ট্রাকের দরজায় বিপজ্জনকভাবে ঝুলতে থাকেন। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে ট্রাকচালক জোরে ব্রেক কষেন। এতে ছিটকে সড়কে পড়ে গুরুতর আহত হন অহনা।

এ ঘটনায় অহনার খালাতো বোন লিজা ইয়াসমিন মিতু বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ ট্রাকটি জব্দ করেছে।

লিজা ইয়াসমিন মিতু গতকাল জানান, ঘটনার সময় ট্রাকচালক নেশাগ্রস্ত ছিলেন। তার কাছে নেশাজাতীয় পানীয়ের বোতল ছিল। পুরো ঘটনাটি তিনি (মিতু) ভিডিও করেছেন। যেটি পরে ফেসবুকে আপলোড করা হলে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। দায়ী ট্রাকচালকের দৃষ্টান্তমূলক সাজা চান মিতু। যেন ভবিষ্যতে কেউ এ ধরনের ঘটনা ঘটানোর সাহস না পায়।

মিতু আরও জানান, অহনার শরীরে এখনও প্রচণ্ড ব্যথা থাকায় শুক্রবার তার আঘাত পাওয়া স্থানের এক্স-রে করা সম্ভব হয়নি। দু'দিন পর চিকিৎসকরা তার শারীরিক অবস্থার ব্যাপারে চূড়ান্তভাবে জানাবেন।

মন্তব্য


অন্যান্য