বিনোদন

চলচ্চিত্রের জন্য আমি পুরোপুরি প্রস্তুত: মিথিলা

প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ১০ জানুয়ারি ২০১৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

চলচ্চিত্রের জন্য আমি পুরোপুরি প্রস্তুত: মিথিলা

চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত মিথিলা

  অনলাইন ডেস্ক

রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। মডেল ও অভিনেত্রী। গতকাল ধ্রুব মিউজিক স্টেশন থেকে প্রকাশ হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'মুখোমুখি'। এতে তার সহশিল্পী কলকাতার গৌরব চক্রবর্তী। কথা হলো তার সঙ্গে-

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'মুখোমুখি' নিয়ে বলুন? 

এটি একটি প্রেমের গল্প নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। পুরো গল্পের মধ্যে দারুণ একটা চমক আছে, যা দর্শকের কাছে খারাপ লাগবে না। এই স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিটির দৃশ্যধারণ হয়েছে কলকাতায়। তবে গল্পে কিন্তু আমাকে বাংলাদেশি মেয়ে হিসেবেই দেখানো হয়েছে। এতে আমার সহশিল্পী ছিলেন কলকাতার অভিনেতা গৌরব। তাকে সহশিল্পী হিসেবে পেয়ে বেশ ভালো লেগেছে। দারুণ অভিনয় করেন তিনি। আমার এই স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিটি পরিচালনা করেছেন কলকাতার পরিচালক পার্থ সেন। 

মিথিলা

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের কাজে আগ্রহী হলেন কেন?

যে যা-ই বলুন না কেন, স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিতে অভিনয় আমার ভালো লাগে। কারণ এতে অল্প সময়ে একটা গল্প বলতে হয়। তাই অভিনয়, উপস্থাপন সবকিছুই ভালো হতে হয়। আমার কাছে এও মনে হয়, একটি নাটক নির্মাণ করতে পরিচালককে কত পরিশ্রম আর কত টাকা খরচ করতে হয়। সেদিক থেকে চিন্তা করলে কোনো ঝামেলা ছাড়াই বেশি বেশি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র করা যায়। এতে ছোট্ট একটা গল্প থাকে, যা দেখে দর্শকরাও মজা পান। আর এখন মানুষের এত সময় নেই। ফলে স্বল্পদৈর্ঘ্যই তারা পছন্দ করেন।

শুনলাম এর কাজের জন্য জীবনের প্রথমবার কলকাতায় গিয়েছেন?

ঠিকই শুনেছেন। আমার কাছে এই স্বল্পদৈর্ঘ্যে অভিনয়টা স্মরণীয় হয়ে থাকবে এ কারণেই যে, এর শুটিং করতেই এবার প্রথমবারের মতো কলকাতায় গিয়েছি। ফলে বেশ কয়েকদিন সেখানে থাকতে হয়েছে। সেখানকার নিউমার্কেটে আমাদের দেশের অনেকের সঙ্গেই দেখা হয়েছে। পাশাপাশি অনেক বাংলাদেশির সঙ্গে সেলফিও তুলেছি। কাজটি খুব উপভোগ করেছি। আশা করি, দর্শকদের ভালো লাগবে। 

মিথিলা

সম্প্রতি নতুন একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করলেন ...

হ্যাঁ, সৈয়দ আপন আহসানের পরিচালনায় আইএফআইসি ব্যাংকের নতুন সেবা 'আমার অ্যাকাউন্ট'-এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছি। কোক স্টুডিওতে এর দৃশ্যধারণ হয়েছে। শুটিংয়ের পুরোটা সময় আপন ভাইয়ের স্ত্রী অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদার সঙ্গে ছিলেন। যে কারণে গল্পে গল্পে দারুণ একটা সময় পার করেছি। পাশাপাশি এবারই প্রথম আপন ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করলাম। তিনি বেশ গুছিয়ে কাজ করেন। পুরো ইউনিটের আন্তরিকতায় আমি মুগ্ধ হয়েছি।

আমাদের দেশের আগের বিজ্ঞাপন ও এখনকার বিজ্ঞাপনের মধ্যে পার্থক্য দেখেন? 

আমার মনে হয়, এখন কিন্তু আমাদের দেশে অনেক ভালো বিজ্ঞাপন হচ্ছে। আসলে বিজ্ঞাপনের প্রধান কাজই তো পণ্যকে ভোক্তার কাছে তুলে ধরা। সে জায়গা থেকে আগের চেয়ে গল্প বলা ও ভিজ্যুয়ালি উপস্থাপনের ধরনে বেশ পরিবর্তন এসেছে। আর ভালো বিজ্ঞাপন কিন্তু আগেও নির্মিত হতো। তবে যখন থেকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, অমিতাভ রেজার মতো মেধাবী নির্মাতারা গল্পকেন্দ্রিক বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাণ শুরু করলেন, মূলত তখন থেকেই বাংলাদেশের বিজ্ঞাপনে ভিজ্যুয়ালিতে বেশ ইতিবাচক পরিবর্তন আসে।

চলচ্চিত্রে অভিনয় নিয়ে বলুন?

চলচ্চিত্রে কাজের জন্য আমি মানসিকভাবে পুরোপুরি প্রস্তুত। ভালো গল্প, গুণী পরিচালক এবং অন্যান্য কিছু ব্যাটে-বলে মিলে যায়, তাহলে হয়তো শিগগিরই চলচ্চিত্রে অভিনয় করব।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

কানাডার ৮ প্রেক্ষাগৃহে ‘যদি একদিন’


আরও খবর

বিনোদন

‘যদি একদিন’ এ অভিনয় করেছেন তাহসান খান ও শ্রাবন্তী

  বিনোদন প্রতিবেদক

বাংলাদেশের ছবি যদি একদিন এবার মুক্তি পাচ্ছে কানাডায়। সেখানে ৮টি প্রেক্ষাগৃহের একযোগে ১৯৬ টি শো নিয়ে প্রথম সপ্তাহ শুরু করতে যাচ্ছে বলে সমকাল অনলাইনকে জানালেন ছবিটির পরিচালক মোস্তফা কামাল রাজ।  

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের কোন ছবি কানাডায় এতোগুলো শো নিয়ে যাত্রা করছে। সেখানে ছবিটির পরিবেশনার দায়িত্বে রয়েছে ‘স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো’। বিষয়টিকে বাংলাদেশের ছবির জন্য রেকর্ড হিসেবেই দেখছেন স্বপ্ন স্কেয়ারক্রোর বাংলাদেশ-এর প্রধান নির্বাহী সৈকত সালাহউদ্দিন।

‘যদি একদিন’ প্রযোজনা করেছে বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া। এ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয়েছে গায়ক ও অভিনেতা তাহসান খানের। তার সঙ্গে রয়েছে কলকাতার নায়িকা শ্রাবন্তী ও ঢাকার তাসকিন রহমান। ছবিটির প্রাণ হিসেবে রয়েছে ছোট্ট মেযে রাইসা। 

পরিবেশক স্বপ্ন স্কেয়ারক্রোর পক্ষ থেকে জানানো হয়, কানাডার সব বড় শহর টরন্টো, মিসিসাগা, অটোয়া, ক্যালগেরি, এডমন্টন, ভ্যানকুভার, উইনিপেগ, সাস্কাটুন-এর একটি করে ‘সিনেপ্লেক্সে’ লোকেশনে চলবে সিনেমাটি।

এ বিষয়ে স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো এর প্রেসিডেন্ট মো. অলিউল্লাহ সজিব বলেন, এর আগে কানাডায় বাংলাদেশি সিনেমার ব্যবসায় ‘আয়নাবাজি’র রেকর্ড ভেঙেছে দেবী। ‘দেবী’-তে দর্শক উপস্থিতির যে মাইলফলক বাংলাদেশি সিনেমা স্পর্শ করেছে, পারিবারিক গল্পে নির্মিত সিনেমা ‘যদি একদিন’ সে রেকর্ড ভেঙে ফেলার সম্ভাবনা রয়েছে।

স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো বাংলাদেশ এর প্রধান নির্বাহী সৈকত সালাহউদ্দিন বলেন, দেশে মুক্তি পেয়ে ‘যদি একদিন’ দর্শক-সমালোচকদের প্রশংসা অর্জন করেছে। লক্ষীসোনা, আমি পারবোনা তোমার হতেসহ গানগুলো দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। প্রধান শিল্পীসহ শিশুশিল্পী রাইসার অভিনয় সবার হৃদয় ছুঁয়েছে। আশা করছি কানাডায় বড় সফলতা পাবে ছবিটি।

‘যদি একদিন’-এর পরিচালক মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পুরো টিমের পক্ষ থেকে কানাডার দর্শকদের শুভেচ্ছা জানিয়ে হলে এসে সিনেমা উপভোগের আমন্ত্রণ জানান। ২০ মার্চ থেকে কানাডায় ছবিটির অগ্রিম টিকেট পাওয়া। অনলাইন ও সংশ্লিষ্ট সিনেমা হলের কাউন্টারে খোঁজ নিলেই আগ্রহীরা টিকেট পেয়ে যাবেন। এ জন্য 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

শবনম ফারিয়ার 'যুদ্ধ দিনের প্রেম'


আরও খবর

বিনোদন

শবনম ফারিয়া

  বিনোদন প্রতিবেদক

বিয়ের পর অভিনয়ে নিয়মিত হয়েছেন মডেল অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। সম্প্রতি তিনি অভিনয় করলেন মুক্তিযুদ্ধের গল্পের একটি নাটকে। নাম 'যুদ্ধ দিনের প্রেম'। এটি পরিচালনা করেছেন সাইদুল ইসলাম রাসেল। পুবাইলে এর শুটিং শেষ হয়েছে।

নাটকে ফারিয়ার বিপরীতে দেখা যাবে ইরফান সাজ্জাদকে। ফারিয়া বলেন, 'যুদ্ধ ও প্রেমের গল্পই নাটকের মূল উপজীব্য। গল্পটি অসাধারণ। এর আগে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক নাটকে অভিনয় করেছি। এবারের কাজটিও বেশ ভালো হয়েছে। আশা করছি নাটকটি দর্শকের ভালো লাগবে।

নাটকটি স্বাধীনতা দিবসে বাংলাভিশনে প্রচার হবে বলে নির্মাতা জানিয়েছেন। এই নাটকটি ছাড়াও ফারিয়া সম্প্রতি দুটি ধারাবাহিকে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন। 'ফ্যামিলি ক্রাইসিস' নাটকটি পরিচালনা করছেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ। আর 'ফ্যামিলি অ্যালবাম' নাটকটি পরিচালনা করছেন ইমরাউল রাফাত। 

এতে অভিনয় প্রসঙ্গে ফারিয়া বলেন, ‘ধারাবাহিকে মাসের একটা নির্দিষ্ট সময়ে কাজের সিডিউল দিতে হয়। এতে অভিনয় করতে গিয়ে অনেক সময় ভালো গল্পের এক ঘণ্টার নাটকও মিস হয়ে যায়। সবকিছু মিলিয়েই ধারাবাহিকে কাজের আগ্রহ কম ছিল। নতুন ধারাবাহিকের গল্পটি অসাধারণ। তাই অভিনয়ে রাজি হয়েছি।'

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

উট থেকে পড়ে আহত অনন্ত জলিল


আরও খবর

বিনোদন

আহত অনন্ত জলিল

  বিনোদন প্রতিবেদক

ইরানে শুটিং হচ্ছে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়ক অনন্ত জলিল প্রযোজিত ও অভিনীত ছবি ‘দিন দ্য ডে’। ছবিটির শুটিং করতে গিয়ে আহত হয়েছেন নায়ক অনন্ত জলিল। ইরানের হেরাতে অবস্থিত মরুভূমিতে উঠের পিঠে উঠে শুটিং করছিলেন তিনি। সেখানে উঠের পিঠ থেকে পড়ে দিয়ে বেশ আহত এ নায়ক। 

দ্রুত স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় অনন্ত জলিলকে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে  তেহরান থেকে ৩৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত ইরানের তৃতীয় বৃহত্তম নগরী এসফাহনে নিয়ে যাওয়া হয়।

চিকিৎসক জানিয়েছেন অনন্ত জলিল বুকের পাঁজরে মারাত্মক ব্যথা পেয়েছেন। তাকে দুই সপ্তাহের সম্পূর্ণ বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। তাই আপাতত ‘দিন-দ্য ডে’ ছবির শুটিং স্থগিত আছে বলে নিশ্চিত করেছেন ‘দিন-দ্য ডে’ ছবির ইরান অংশের মূল পরামর্শক ও উপদেষ্টা ড. মুমিত আল রশিদ। অসুস্থ শরীর নিয়ে ইতোমধ্যে অনন্ত জালিল বাংলাদেশে এসে পৌচেছেন বলেও জানান তিনি। 

জানা গেছে, দেশে ফেরার পর তাঁর বুকের ব্যথা আরও প্রকট আকার ধারণ করে। এরপর তাকে থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসা নিচ্ছেন ঢাকাই ছবির এ আলোচিত নায়ক। 

বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘দিন দ্য ডে।  ছবিটির বাংলাদেশ অংশের প্রযোজক অনন্ত।  ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ইরানে ছবিটির শুটিং শুরু হয়। ছবিটি পরিচালনা করছেন  ইরানের ফারাবি সিনেমা ফাউন্ডেশনের পরিচালক আলীরেজা তাবেশ।