বিনোদন

চলচ্চিত্রের জন্য আমি পুরোপুরি প্রস্তুত: মিথিলা

প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ১০ জানুয়ারি ২০১৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

চলচ্চিত্রের জন্য আমি পুরোপুরি প্রস্তুত: মিথিলা

চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত মিথিলা

  অনলাইন ডেস্ক

রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। মডেল ও অভিনেত্রী। গতকাল ধ্রুব মিউজিক স্টেশন থেকে প্রকাশ হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'মুখোমুখি'। এতে তার সহশিল্পী কলকাতার গৌরব চক্রবর্তী। কথা হলো তার সঙ্গে-

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'মুখোমুখি' নিয়ে বলুন? 

এটি একটি প্রেমের গল্প নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। পুরো গল্পের মধ্যে দারুণ একটা চমক আছে, যা দর্শকের কাছে খারাপ লাগবে না। এই স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিটির দৃশ্যধারণ হয়েছে কলকাতায়। তবে গল্পে কিন্তু আমাকে বাংলাদেশি মেয়ে হিসেবেই দেখানো হয়েছে। এতে আমার সহশিল্পী ছিলেন কলকাতার অভিনেতা গৌরব। তাকে সহশিল্পী হিসেবে পেয়ে বেশ ভালো লেগেছে। দারুণ অভিনয় করেন তিনি। আমার এই স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিটি পরিচালনা করেছেন কলকাতার পরিচালক পার্থ সেন। 

মিথিলা

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের কাজে আগ্রহী হলেন কেন?

যে যা-ই বলুন না কেন, স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিতে অভিনয় আমার ভালো লাগে। কারণ এতে অল্প সময়ে একটা গল্প বলতে হয়। তাই অভিনয়, উপস্থাপন সবকিছুই ভালো হতে হয়। আমার কাছে এও মনে হয়, একটি নাটক নির্মাণ করতে পরিচালককে কত পরিশ্রম আর কত টাকা খরচ করতে হয়। সেদিক থেকে চিন্তা করলে কোনো ঝামেলা ছাড়াই বেশি বেশি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র করা যায়। এতে ছোট্ট একটা গল্প থাকে, যা দেখে দর্শকরাও মজা পান। আর এখন মানুষের এত সময় নেই। ফলে স্বল্পদৈর্ঘ্যই তারা পছন্দ করেন।

শুনলাম এর কাজের জন্য জীবনের প্রথমবার কলকাতায় গিয়েছেন?

ঠিকই শুনেছেন। আমার কাছে এই স্বল্পদৈর্ঘ্যে অভিনয়টা স্মরণীয় হয়ে থাকবে এ কারণেই যে, এর শুটিং করতেই এবার প্রথমবারের মতো কলকাতায় গিয়েছি। ফলে বেশ কয়েকদিন সেখানে থাকতে হয়েছে। সেখানকার নিউমার্কেটে আমাদের দেশের অনেকের সঙ্গেই দেখা হয়েছে। পাশাপাশি অনেক বাংলাদেশির সঙ্গে সেলফিও তুলেছি। কাজটি খুব উপভোগ করেছি। আশা করি, দর্শকদের ভালো লাগবে। 

মিথিলা

সম্প্রতি নতুন একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করলেন ...

হ্যাঁ, সৈয়দ আপন আহসানের পরিচালনায় আইএফআইসি ব্যাংকের নতুন সেবা 'আমার অ্যাকাউন্ট'-এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছি। কোক স্টুডিওতে এর দৃশ্যধারণ হয়েছে। শুটিংয়ের পুরোটা সময় আপন ভাইয়ের স্ত্রী অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদার সঙ্গে ছিলেন। যে কারণে গল্পে গল্পে দারুণ একটা সময় পার করেছি। পাশাপাশি এবারই প্রথম আপন ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করলাম। তিনি বেশ গুছিয়ে কাজ করেন। পুরো ইউনিটের আন্তরিকতায় আমি মুগ্ধ হয়েছি।

আমাদের দেশের আগের বিজ্ঞাপন ও এখনকার বিজ্ঞাপনের মধ্যে পার্থক্য দেখেন? 

আমার মনে হয়, এখন কিন্তু আমাদের দেশে অনেক ভালো বিজ্ঞাপন হচ্ছে। আসলে বিজ্ঞাপনের প্রধান কাজই তো পণ্যকে ভোক্তার কাছে তুলে ধরা। সে জায়গা থেকে আগের চেয়ে গল্প বলা ও ভিজ্যুয়ালি উপস্থাপনের ধরনে বেশ পরিবর্তন এসেছে। আর ভালো বিজ্ঞাপন কিন্তু আগেও নির্মিত হতো। তবে যখন থেকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, অমিতাভ রেজার মতো মেধাবী নির্মাতারা গল্পকেন্দ্রিক বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাণ শুরু করলেন, মূলত তখন থেকেই বাংলাদেশের বিজ্ঞাপনে ভিজ্যুয়ালিতে বেশ ইতিবাচক পরিবর্তন আসে।

চলচ্চিত্রে অভিনয় নিয়ে বলুন?

চলচ্চিত্রে কাজের জন্য আমি মানসিকভাবে পুরোপুরি প্রস্তুত। ভালো গল্প, গুণী পরিচালক এবং অন্যান্য কিছু ব্যাটে-বলে মিলে যায়, তাহলে হয়তো শিগগিরই চলচ্চিত্রে অভিনয় করব।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

'ভালবেসেছিলাম, কিন্তু সম্পর্কগুলো ব্যর্থ ছিল'


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

টালিউড অভিনেত্রী স্বস্তিকা অভিনীত ‘শাহজাহান রিজেন্সি’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে গত শুক্রবার। সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত এই ছবিতে স্বস্তিকার অভিনয় এরই মধ্যে প্রশংসিত হয়েছে নানা মহলে। 

তবে ছবি মুক্তির আগে থেকে সৃজিতের ছবিতে স্বস্তিকার উপস্থিতি নিয়ে সরগরম ছিল গোটা ইন্ডাস্ট্রি। কারণ একসময় সৃজিত-স্বস্তিকার ব্যক্তিগত রসায়ন ছিল অনেকের চর্চার বিষয়। আবার ‘শাহজাহান রিজেন্সি’ ছবির অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং স্বস্তিকার সম্পর্কও একসময় আলোচিত ছিল। আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, দুই প্রাক্তনের সঙ্গে স্বস্তিকার কাজ করা নিয়ে ছবি মুক্তির আগে থেকেই নতুনভাবে আলোচনা শুরু হয়। তৈরি হয় নানা গুজব। ছবি মুক্তির পর সামাজিক মাধমে এসব গুজবের ভালই জবাব দিয়েছেন স্বস্তিকা।

শুক্রবার ফেসবুকে স্বস্তিকা লিখেছেন, ‘এই ছবিতে কাজ করা প্রাক্তনদের সঙ্গে কাজ করার কোনও বিষয় নয়। ছবিতে এমন এক চরিত্রে আমি অভিনয় করেছি যেটা কোনও অভিনেতা হয়তো সারা জীবনেও পাবেন না। এই চরিত্র পাওয়া মানে অভিনেতা হিসেবে একটা উচ্চতায় পৌঁছে যাওয়া।’

তিনি আরও জানান, ছবির চরিত্রটা তিনি গ্রহণ করেছেন এবং সে অনুযায়ী ফুটিয়ে তুলেছেন। স্বস্তিকা জানতেন, এই ছবিতে কাজ করলে তার ব্যক্তিগত বিষয়গুলো আবারও মিডিয়ায় আলোচনা হবে।

এ কারণে তিনি লিখেছেন, ‘এটা সত্যি, আমি ভালবেসেছিলাম। কিন্তু সেই সম্পর্কগুলো কাজ করেনি।’ ভালবাসার সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে ব্যর্থ হলেও অভিনেতা হিসাবে নিজেকে ব্যর্থ মনে করেন না স্বস্তিকা।এই ছবিতে তার অভিনয় মানুষ মনে রাখবে এমনটাই দাবী করেন তিনি।

স্বস্তিকা লিখেছেন, ‘আমি আমার কাজটা করেছি। বাকিটা আপনাদের হাতে।’

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

কি হয়েছিল স্বরার সঙ্গে?


আরও খবর

বিনোদন
কি হয়েছিল স্বরার সঙ্গে?

প্রকাশ : ১৯ জানুয়ারি ২০১৯

স্বরা ভাস্কর- ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

ভারতে '#মিটু' আন্দোলনের মশাল জ্বালিয়ে দিয়ে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে গেছেন বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। তবে তিনি ফিলে গেলেও এখনও বহু তারকা নিজেদের যৌন হেনস্তার ঘটনা প্রকাশ্যে জানাচ্ছেন। এবার নিজের সঙ্গে ঘটে যাওয়া যৌন হেনস্তার খবর জানালেন 'ভিরে দি ওয়েডিং' খ্যাত অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর।

জি-নিউজ জানায়, অন্যান্য বলিউড অভিনত্রীর মতো স্বরা ভাস্করও যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছিলেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে স্বরার জীবনে ঘটে যাওয়া সেই দু:সহ স্মৃতি কথা বর্ণনা করেছেন।

স্বরা জানান, এক পরিচালক তাকে যৌন হেনস্তা করে। কিন্তু তিনি যে এই বিরুপ পরিস্থিতির শিকার হয়েছিলেন, তা সে সময় বুঝতেই পারেননি নায়িকা। অবশ্য সেই পরিচালকের নাম মুখে আনেননি স্বরা।


স্বরা আরও জানান, সেই ঘটনা বুঝতে আমার ছয় থেকে আট বছর  সময় লেগেছিল। সে সময় কোনও একটা আলোচনায় আমি অন্য কাউকে তার হেনস্তার কথা বলতে শুনেছিলাম। তখন আমি ভেবেছিলাম, আমার সঙ্গে যেটা হয়েছিল কাজের জায়গায় সেটাও তো তা হলে যৌন হেনস্তা! আমাকে রীতিমতো লুঠ করেছিল ওই পরিচালক।

এতদিন পর তিনি মুখ খুললেও, সামাজিক ভাবে আরও বেশি সচেতন হওয়ার বার্তা দিয়েছেন তিনি। 

পরের
খবর

মুয়াজ্জিন থেকে সিনেমার ভিলেন


আরও খবর

বিনোদন
মুয়াজ্জিন থেকে সিনেমার ভিলেন

প্রকাশ : ১৯ জানুয়ারি ২০১৯

আশরাফুল হক ডন

  অনলাইন ডেস্ক

চলচ্চিত্রের মন্দলোক হিসেবে পরিচিত আশরাফুল হক ডন। দর্শকরা যাকে খলনায়ক ডন হিসেবেই চেনেন। অথচ এই চলচ্চিত্রে খলনায়ক হওয়ার আগে মসজিদে আযান দিতেন তিনি। মসজিদের মুয়াজ্জিনের ভুমিকা পালন করতেন। 

বগুড়ায় জন্ম ডনের। বাবা প্রয়াত হলেও মা বসবাস করছেন আমেরিকায়। দশ ভাই বোনের মধ্যে সবার ছোট ডন।  ১৯৭১ সালে জন্ম নেয়া ডন  বগুড়া ছেড়ে ঢাকায় আসার পরই পরিচিত হয় পরিচালক সোহানুর রহমান সোহানের সঙ্গে। তিনিই প্রথম তাকে চলচ্চিত্রে সুযোগ দেন। ছবির নাম ‘লাভ’। কিন্তু ডনের প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। তখন থেকেই  চলচ্চিত্র তার ধ্যান-জ্ঞান হয়ে যায়।

আশরাফুল হক ডন

‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবিতে অভিনয়ের সুবাধেই পরিচিত হয় প্রয়াত নায়ক সালমান শাহর সঙ্গে। শুরু হয় তাদের বন্ধুত্বও। চলচ্চিত্র ইন্ডাষ্ট্রিতে ডন সালমান শাহর সবচেয়ে কাছের বন্ধু্টিই ছিলেন। ডনের সঙ্গে গল্প নিয়ে বসলে কোন না কোনভাবে সেখানে সালমান শাহকে নিয়ে স্মৃতি রোমন্থন করবেনই তিনি।

সম্প্রতি বৈশাখী টিভিতে নতুন বছর থেকে শুরু হয়েছে  শোবিজ মিডিয়ার তারকাদের জীবনীভিত্তিক অনুষ্ঠান ‘প্রিয়মুখ’। আজ সন্ধ্যা ৬.১৫ মিনিটে  প্রচার হবে এ অনুষ্ঠানের তৃতীয় পর্ব। এ অনুষ্ঠানের  জন্য মুখোমুখি কথা বলেছেন খলনায়ক ডন। সেখানেই নিজের সম্পর্কে নানা অজানা তথ্য শেয়ার করলেন এ খল অভিনেতা। জানালেন সালমান শাহর সঙ্গে তার বন্ধুত্বের গল্পও। 

আশরাফুল হক ডন

সালমান শাহকে নিয়ে স্মৃতি চারণ করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন ডন। জানান বন্ধু হারানোর বেদনা। প্রিয় বন্ধুটি চলে যাওয়ায় চলচ্চিত্রের অপূরণীয় ক্ষতির কথাও। 

সালমান শাহ অভিনীত ২৭টি ছবির মধ্যে ২৪ টিতেই খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করেন ডন। তার অভিনীত  হিট ছবির তালিকায় রয়েছে  ‘এ জীবন তোমার আমার, বিক্ষোভ, ভালোবাসার মূল্য কত, তোমাকে চাই, ফুলের মতো বউ, বিয়ের ফুল, জীবন সংসার, ভালোবাসা কারে কয়, মহামিলন, মিলন হবে কত দিনে‘র মতো ছবি। 

ডন অভিনীত  ছবির সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৬শ’ । চলচ্চিত্র ছাড়াও বেশ কয়েকটি টিভি নাটকেও অভিনয় করেন তিনি। কৌশিক হোসেন তাপস পরিচালিত ‘কত ভালোবাসি তোমাকে’ টেলিফিল্মে নায়িকা জনার বিপরীতে নায়কও চিলেন তিনি।  অভিনয়ের পাশাপাশি ‘এক জনমের ভালোবাসা’ নামে একটি চলচ্চিত্রও প্রযোজনা করেন।

গড়ে তুলেছেন ব্যান্ড দল ‘আর্কাইভ’। জড়িত আছেন নানা রকম সামাজিক কর্মকাণ্ডে। এক সময় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট খবর