বিনোদন

বিনামূল্যে ছবি দেখতে পাবে শিক্ষার্থীরা

প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ০৯ জানুয়ারি ২০১৯

বিনামূল্যে ছবি দেখতে পাবে শিক্ষার্থীরা

  অনলাইন ডেস্ক

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে 'ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব'। ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’- শ্লোগান সামনে রেখে শুরু হচ্ছে এ উৎসব। রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের উদ্যোগে আয়োজিত এ উৎসব চলবে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। উৎসবকালীন সময়ে পরিচয়পত্র দেখিয়ে মূল কেন্দ্রগুলোতে শিক্ষার্থীরা বিনা মূল্যে ছবি দেখতে পারবে বলে জানান কর্তৃপক্ষ। 

তবে যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমা হলে ব্লকবাস্টার কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত মূল্যে ছবি দেখতে হবে বলেও আজ দুপুরে ঢাকা ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। 

সংসবাদ সম্মেলেন উপস্থিত ছিলেন  উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল, উৎসব কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ম হামিদ, উৎসবের অন্যতম জুরি ইলিয়াস কাঞ্চনসহ অনেকেই। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ উৎসবের উদ্বোধন করবেন। তখন তথ্য সচিব আবদুল মালেক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। সভাপতিত্ব করবেন উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম । 

উদ্বোধনী চলচ্চিত্র হিসেবে থাকছে তুরস্ক ও-জর্ডানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত চলচ্চিত্রটি ছবি ‘‌দ্যা গেস্ট’। এটি পরিচালনা করেছেন রস্কের নির্মাতা আন্দাজ হাজানেদারগলু। বিকেল ৫টায় দেখানো হবে ছবিটি। 

এ ছাড়াও একইদনে আরও প প্রর্দশীত হবে 'দেব ভূমী', 'দ্য কেন্টারস', ট্যাঙ্গো হ্যাজেনডারেগ্নু', 'আল রাহা', 'পিহুজলি', 'প্যাসেজ অব লাইফ', 'ফ্রম ইউএফএ', 'উইথ লাইফ', আইসোলেশান', ইউএনসাইড', 'দ্য ভার্জিন', 'হিউম্যান অব নেচার', 'এন্টার দস আগুয়াস', 'পজ' এবং 'ক্রসিং দ্য বর্ডার'।

৯ দিনব্যাপী এ উৎসব জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তন ও বেগম সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তন, অঁলিয়স ফ্রঁসেস মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ও যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাস-এ ছবিগুলো প্রদর্শিত হবে। প্রদর্শনীর সময় প্রতিদিন সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকাল ৩টা। 

সংবাদ সম্মেলনে উৎসব পরিচালক জানান, বরাবরের মতোই এবারের উৎসবেও এশিয়ান প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, চিলড্রেনস ফিল্ম, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম সেকশনে ৭২টি দেশের দুই শত ১৮টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে । উৎসবের ২১৮টির মধ্যে পূর্ণদৈর্ঘ্য (৭০ মিনিটের বেশি) চলচ্চিত্রের সংখ্যা ১২২টি, স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন চলচ্চিত্রের সংখ্যা ৯৬টি।

উৎসবের মূল কেন্দ্র জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে সকাল ১০টা থেকে চলবে শিশুতোষ চলচ্চিত্র। এ ক্ষেত্রে শিশুদের সঙ্গে অভিভাবকরাও আসতে পারবেন বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।  এ ছাড়া, সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকেল ৩টার প্রদর্শনী শিক্ষার্থীরা বিনা মূল্যে দেখতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে হবে। এর বাইরে, সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য টিকিটমূল্য ৫০ টাকা। কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে সকাল ১০টা থেকে শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। যেখানে অভিভাবকরাও শিশুদের সঙ্গে এই চলচ্চিত্রগুলো বিনা মূল্যে উপভোগ করতে পারবেন। এ ছাড়া, সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকেল ৩টার প্রদর্শনী শিক্ষার্থীরা বিনা মূল্যে দেখতে পারবেন। জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে সব প্রদর্শনী সবাই বিনা মূল্যে উপভোগ করতে পারবেন।  আগে আসলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে বিনামূল্যে ছবি দেখার আসন। পাশাপাশি অলিয়ঁস ফ্রঁসেজ মিলনায়তনেও প্রদর্শনীগুলো সবার জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে বলে জানানো হয়। 


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

মোদির বক্তৃতায় অনুপ্রাণিত আমির


আরও খবর

বিনোদন

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (বাঁয়ে) সঙ্গে আমির খান— জিনিউজ

  অনলাইন ডেস্ক

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা আমির খান।

শনিবার ভারতীয় সিনেমার জাতীয় জাদুঘরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে প্রশংসায় ভাসান এ তারকা। ওই জাদুঘরের উদ্বোধক ছিলেন নরেন্দ্র মোদি। সেখানে তার বক্তৃতা শোনার পরই তার বক্তব্যে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হতে দেখা যায় আমির খানকে।

বছর চারেক আগে আমির খান বলেছিলেন, এই দেশে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তার স্ত্রী আতঙ্কিত। তিনি দেশ ছেড়ে চলে যেতে চান। মোদি জমানার দেড় বছরের মাথায় একজন সেলিব্রিটির মুখ থেকে এমন বক্তব্য শুনে হইচই পড়ে গিয়েছিল ভারতজুড়ে।

সেই সময় অনেকে আমিরকে সমর্থন করেছিলেন। আবার অনেকে আমিরের সমালোচনায় সরব হয়েছিলেন। দেশে বাক্-স্বাধীনতা রয়েছে বলেই আমির এসব মন্তব্য করতে সুযোগ পাচ্ছেন বলেও অনেকে সেই সময় মন্তব্য করেছিলেন।

ফলে নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে নতুন করে আমির খানের এই প্রতিক্রিয়ায় আবারও হইচই শুরু হয়েছে। কারণ, চার বছর আগে আমির আসলে মোদি সরকারকে আক্রমণ করেই বক্তব্য দিয়েছিলেন। ফলে এবার কেন তিনি মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন, সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

তবে আমিরের বক্তব্যে স্পষ্ট যে তিনি শনিবারের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ওই নরেন্দ্র মোদির প্রশংসা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সিনেমার জাদুঘরের উদ্বোধনের পর বক্তৃতা দেন। এ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছিলেন আমির খান।

তার প্রতিক্রিয়ায় বলিউডের এই অভিনেতা বলেন, 'ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সম্বন্ধে প্রধানমন্ত্রী এই ইতিবাচক মনোভাব দেখে খুবই ভালো লাগল। শিল্পজগত ও শিল্পীদের নিয়ে তার দর্শন দেখেও ভালো লেগেছে। অনুপ্রাণিত হওয়ার মতো এমন একটি বক্তৃতা শুনতে পারাটা সত্যিই ভালো।'

প্রসঙ্গত, শনিবার মুম্বইয়ের ওই অনুষ্ঠানে হাজির ছিল গোটা বলিউড। অধিকাংশ কলাকুশলীর সঙ্গে মোদি আলাদাভাবে কথা বলেন। সেই কথাবার্তা সম্বন্ধে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বলিউডের অনেকেই। ট্যুইট করেছেন অনেকে, যেগুলো রি-ট্যুইট স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সূত্র: জিনিউজ

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

'ভালবেসেছিলাম, কিন্তু সম্পর্কগুলো ব্যর্থ ছিল'


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

টালিউড অভিনেত্রী স্বস্তিকা অভিনীত ‘শাহজাহান রিজেন্সি’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে গত শুক্রবার। সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত এই ছবিতে স্বস্তিকার অভিনয় এরই মধ্যে প্রশংসিত হয়েছে নানা মহলে। 

তবে ছবি মুক্তির আগে থেকে সৃজিতের ছবিতে স্বস্তিকার উপস্থিতি নিয়ে সরগরম ছিল গোটা ইন্ডাস্ট্রি। কারণ একসময় সৃজিত-স্বস্তিকার ব্যক্তিগত রসায়ন ছিল অনেকের চর্চার বিষয়। আবার ‘শাহজাহান রিজেন্সি’ ছবির অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং স্বস্তিকার সম্পর্কও একসময় আলোচিত ছিল। আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, দুই প্রাক্তনের সঙ্গে স্বস্তিকার কাজ করা নিয়ে ছবি মুক্তির আগে থেকেই নতুনভাবে আলোচনা শুরু হয়। তৈরি হয় নানা গুজব। ছবি মুক্তির পর সামাজিক মাধমে এসব গুজবের ভালই জবাব দিয়েছেন স্বস্তিকা।

শুক্রবার ফেসবুকে স্বস্তিকা লিখেছেন, ‘এই ছবিতে কাজ করা প্রাক্তনদের সঙ্গে কাজ করার কোনও বিষয় নয়। ছবিতে এমন এক চরিত্রে আমি অভিনয় করেছি যেটা কোনও অভিনেতা হয়তো সারা জীবনেও পাবেন না। এই চরিত্র পাওয়া মানে অভিনেতা হিসেবে একটা উচ্চতায় পৌঁছে যাওয়া।’

তিনি আরও জানান, ছবির চরিত্রটা তিনি গ্রহণ করেছেন এবং সে অনুযায়ী ফুটিয়ে তুলেছেন। স্বস্তিকা জানতেন, এই ছবিতে কাজ করলে তার ব্যক্তিগত বিষয়গুলো আবারও মিডিয়ায় আলোচনা হবে।

এ কারণে তিনি লিখেছেন, ‘এটা সত্যি, আমি ভালবেসেছিলাম। কিন্তু সেই সম্পর্কগুলো কাজ করেনি।’ ভালবাসার সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে ব্যর্থ হলেও অভিনেতা হিসাবে নিজেকে ব্যর্থ মনে করেন না স্বস্তিকা।এই ছবিতে তার অভিনয় মানুষ মনে রাখবে এমনটাই দাবী করেন তিনি।

স্বস্তিকা লিখেছেন, ‘আমি আমার কাজটা করেছি। বাকিটা আপনাদের হাতে।’

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

কি হয়েছিল স্বরার সঙ্গে?


আরও খবর

বিনোদন
কি হয়েছিল স্বরার সঙ্গে?

প্রকাশ : ১৯ জানুয়ারি ২০১৯

স্বরা ভাস্কর- ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

ভারতে '#মিটু' আন্দোলনের মশাল জ্বালিয়ে দিয়ে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে গেছেন বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। তবে তিনি ফিলে গেলেও এখনও বহু তারকা নিজেদের যৌন হেনস্তার ঘটনা প্রকাশ্যে জানাচ্ছেন। এবার নিজের সঙ্গে ঘটে যাওয়া যৌন হেনস্তার খবর জানালেন 'ভিরে দি ওয়েডিং' খ্যাত অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর।

জি-নিউজ জানায়, অন্যান্য বলিউড অভিনত্রীর মতো স্বরা ভাস্করও যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছিলেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে স্বরার জীবনে ঘটে যাওয়া সেই দু:সহ স্মৃতি কথা বর্ণনা করেছেন।

স্বরা জানান, এক পরিচালক তাকে যৌন হেনস্তা করে। কিন্তু তিনি যে এই বিরুপ পরিস্থিতির শিকার হয়েছিলেন, তা সে সময় বুঝতেই পারেননি নায়িকা। অবশ্য সেই পরিচালকের নাম মুখে আনেননি স্বরা।


স্বরা আরও জানান, সেই ঘটনা বুঝতে আমার ছয় থেকে আট বছর  সময় লেগেছিল। সে সময় কোনও একটা আলোচনায় আমি অন্য কাউকে তার হেনস্তার কথা বলতে শুনেছিলাম। তখন আমি ভেবেছিলাম, আমার সঙ্গে যেটা হয়েছিল কাজের জায়গায় সেটাও তো তা হলে যৌন হেনস্তা! আমাকে রীতিমতো লুঠ করেছিল ওই পরিচালক।

এতদিন পর তিনি মুখ খুললেও, সামাজিক ভাবে আরও বেশি সচেতন হওয়ার বার্তা দিয়েছেন তিনি।