বিনোদন

পথশিশুদের সঙ্গে জন্মদিন উদযাপন করলেন নায়ক

প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

পথশিশুদের সঙ্গে জন্মদিন উদযাপন করলেন নায়ক

সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সঙ্গে কেক কাটছেন নায়ক বাপ্পি চৌধুরী- সমকাল

  অনলাইন ডেস্ক

ভক্তদের কাছে তারকা মানেই ভিন্ন কিছু। স্বপ্নের জগতের মানুষ। পছন্দের তারকার সঙ্গে একটু দেখা করা, সেলফিবন্দি হওয়া, প্রিয় তারকার সঙ্গে সামান্য কথা বলা- এসব মানেই যেন ভক্তদের পরম পাওয়া। এই ভক্তদের জন্যই তারকা তারা। তাই  তাদের প্রতি থাকে অগাধ ভালোবাসা।

ভক্ত ও পথশিশুদের নিয়ে নায়কের জন্মদিন উদযাপন - সমকাল

ভক্তদের 'মিষ্টি যন্ত্রণা' তারকাদের সামান্য বিব্রত করলেও এটাকে  তারা ভালোবাসার বহি:প্রকাশ বলেই ধরে নেন। ঢাকাই ছবির অন্যতম জনপ্রিয় নায়ক বাপ্পি চৌধুরী। ভক্তরা ভালোবেসে তার নামে অনেক ফ্যানপেজে বা গ্রুপ খুলেছেন স্যোস্যাল মাধ্যমে। এর অন্যতম দুটি অফিসিয়াল গ্রুপ হচ্ছে  ‘হার্ট অব বাপ্পি চৌধুরী গ্রুপ’ ও ‘টিম বাপ্পি’। 

বৃহস্পতিবার জন্মদিন উপলক্ষে দুটি গ্রুপ থেকেই আয়োজন করা হয় কেক কাটার। ধানমন্ডির একটি রেস্টুরেন্টে হার্ট অব বাপ্পি চৌধুরী গ্রুপ প্রিয় নায়ককে নিয়ে কাটে কেক। এ সময় বাপ্পি চৌধুরী তার ফেসবুকে ফ্যানপেজে লাইভে এসে এ দৃশ্য দেশব্যাপি অগণিত ভক্তদের সঙ্গে শেয়ারও করেন। 

ভক্ত ও পথশিশুদের নিয়ে নায়কের জন্মদিন উদযাপন- সমকাল 

এরপরই ছুটে যান ধানমন্ডির ১২ নাম্বারে। কারণ সেখানে ‘টিম বাপ্পি চৌধুরী’র সদস্যরা অপেক্ষা করছিলেন এ নায়কের জন্য। নায়ক এলে পথশিশুদের নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটা হবে। এখানে পৌছুলে পথশিশুরা হৈ চৈ করে ঘিরে ধরে নায়ককে। এরপর পথশিশুদের সঙ্গে কেক কাটেন বাপ্পি। তাদের হাত থেকে কেক খান। নিজেও তাদের খাইয়ে দেন। ভক্তদের এমন আয়োজনের মুহূর্তে বেশ আবেগপ্রবণ হয়ে যান এ নায়ক। 

সমকাল অনলাইনকে বাপ্পি চৌধুরী বলেন, ‘এটাই হচ্ছে আসল ভালোবাসা। অথচ আমাদের কাছে তাদের কোন স্বার্থ নেই। ভক্তরা বাংলা ছবিকে ভালোবেসে আমাদের এমন সম্মান দিচ্ছেন। এমন ভালোবাসছেন আমাকে। এরচেয়ে বড় পাওয়া আর কী হতে পারে? পথশিশুদের সঙ্গে অনেকটা সময় কাটালাম। সময়টা আমার জন্য স্মরীয় হয়ে থাকবে। সবার প্রতি অনেক অনেক ভালোবাসা।’

বাপ্পি  চৌধুরী ফ্যান ক্লাবের সদস্যদের সঙ্গে বাপ্পি- সমকাল

২০১২ সালে ‘ভালোবাসার রং’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আসেন তিনি। এরই মধ্যে অভিনয় দিয়ে ঢালিউডে নিজের শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন বাপ্পী। প্রথম দুটি চলচ্চিত্র জাজ মাল্টিমিডিয়ার ব্যানারে হলেও পরে অন্য প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গেও ছবি করেছেন বাপ্পী। এ পর্যন্ত তার প্রায় ৩২টি ছবি মুক্তি পেয়েছে । সর্বশেষ বাপ্পীর মুক্তি পাওয়া ‘নায়ক’ ছবিটি বেশ প্রশংসিত হয়।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

অনলাইনে অর্ডার, বাক্স খুলেই হতাশ সোনাক্ষী!


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

হরহামেশাই প্রতারণার অভিযোগ আসে! অনলাইনে দ্রব্য কিনে সুবিধা করতে পারেন না ক্রেতারা। একটার বদলে আরেকটা; আবার কখনও বা পুরো জিনিসটাই বদলে যায়! তাই বলে বলিউড তারকা সোনাক্ষী সিনহার সঙ্গেও ঘটবে এমনটা!

হ্যাঁ। সম্প্রতি এমনই অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হলো এই অভিনেত্রীকে। রীতিমতো ভড়কে গেছেন তিনি। হেডফোনের বদলে তাকে দেওয়া হয়েছে একটা বাটখারা!

জিনিউজ বলছে, আমাজনডটইন থেকে একটি খ্যাতনামা সংস্থার হেডফোন অর্ডার করেছিলেন অভিনেত্রী সোনাক্ষী। যার জন্য তিনি দিয়েছিলেন ১৮ হাজার টাকা।

তার অর্ডার মতো একটি বাক্সবন্দি পার্সেল এসে হাজিরও হয় অভিনেত্রীর বাড়িতে। তবে মনের আনন্দে সোনাক্ষী যখন সেই পার্সেল খুললেন তখন তিনি যা দেখলেন, তা যেকেউ দেখলে চমকে যাবেন...।

বাক্স খুলে সোনাক্ষী কী দেখলেন জানেন? দেখলেন বাক্স-বন্দি অবস্থায় এসেছে একটি ভারি লোহার বাটখারা। হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন। এমনটাই ঘটেছে দাবাং গার্লের সঙ্গে।

বিরক্ত সোনাক্ষী সরাসরি আমাজনডটইনের ক্রেতা পরিষেবা দফতরে ফোন করেন, কিন্তু তিনি কোনও সাহায্যই পাননি বলে অভিযোগ করেছেন অভিনেত্রী।

বিষয়টি টুইট করে প্রকাশ্যে আনেন অভিনেত্রী। ক্ষিপ্ত সিনহা এই ঘটনাকে এক প্রকার চুরির ঘটনা বলেই দাবি করেছেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

বন্ধ মনোয়ার সিনেমা হল চালু হবে ভোটের পর


আরও খবর

বিনোদন

আপাতত বন্ধ জামালপুর সদরের মনোয়ার সিনেমা হল

  অনিন্দ্য মামুন

জামালপুর জেলা সদরে আর কোন সিনেমা হলে রইলো না। ‘কথাকলি’, ‘নিরালা’, ‘সুরভী’র পর এবার বন্ধ হয়ে গেলো একমাত্র সিনেমা হল ‘মনোয়ার’ । এমন খবরের ভিত্তিতেই সমকাল অনলাইনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় মনোয়ার সিনেমা হলের পরিচালক মো. আলমগীর হোসেনের সঙ্গে। তিনি দিলেন ইতিবাচক খবর। একেবারে বন্ধ হয়নি হলটি। আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। নির্বাচনের পরই চালু হবে মনোয়ার। 

মনোয়ার সিনেমা হলটির মালিক লেবু মল্লিক। যিনি ৮ বছর আগে মারা যান। মালিকের মৃত্যুর স্ত্রী বিউটি বেগমের কাছেই দায়িত্ব আসে মনোয়ারের। তিনি তার দুই ভাই আলমগীর ও জাহাঙ্গীরকে চালাতে দেন। বিগত দুই বছর ধরে জাহাঙ্গীর ও আলমগীরই হলটি ভাড়া চালাচ্ছেন বলে জানান লেবু মল্লিকের স্ত্রী বিউটি বেগম। 

হল বন্ধ করে দেয়া প্রসঙ্গে মো. আলমগীর হোসেন সমকাল অনলাইনকে বলেন, ‘চলচ্চিত্রের ব্যবসা নেই। বিগত কয়েক বছর ধরেই ক্রমাগত লস দিয়ে যাচ্ছি। ভালো কোন চলচ্চিত্রও বাংলাদেশে নির্মাণ হচ্ছে না। কিছুদিন যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণ হচ্ছে। তখন কিছু চলচ্চিত্রে পেয়েছি এখন আবার চলচ্চিত্র সংকট। এতো লস দিয়ে তো আর ব্যবসা চালাতে পারিনা। তাই মনোয়ার হল বন্ধ করে দিতে চাইছিলাম। ভেবেছিলাম অ্যাপার্টমেন্ট করে ভাড়া দেবো। কিন্তু হল বন্ধের ঘোষণায় চারদিক থেকে ফোন আসা শুরু হয়েছে। বিনোদনের মাধ্যমটি বন্ধ হোক এটা চাইছেন না অনেকেই। এখানকার টিএনও সাহেবও ফোন দিয়ে বন্ধ না করার কথা বলেছেন। তাই নির্বাচনের আগ মুহুর্ত পর্যন্ত মনোয়ার বন্ধ থাকবে। নির্বাচনের পর আবার চালু করবো মনোয়ার সিনেমা হল।’

জামালপুর সদরের মনোয়ার সিনেমা হল

আপনার দুই ভাইয়ের মধ্যে কোন্দলের কারণেই নাকী বন্ধ করে দিয়েছেন হলটি? এমন প্রশ্নের উত্তরে  আলমগীর বলেন, ‘তেমন কিছুই নয়। চলচ্চিত্রে কোন ব্যবসা নেই। দর্শকরা হল বিমুখ বলেই বন্ধ হয়েছে। ব্যবসা হোক বা না হোক সপ্তায় সপ্তায় তো হলের মেশিন ভাড়া ঠিকই দিতে হয়। আর কত লস দেবো। তাই সিন্ধান্ত নিয়েছি।’

নির্বাচনের পরে হলটি আবার চালু করলে ব্যবসা করতে পারবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে আলমগীর বলেন,‘ নতুনভাবে ভাবতে চাচ্ছি। বিল্ডিংটা ভাঙ্গতেও পারি। ভেঙ্গে অ্যাপার্টমেন্ট করবো। পাশাপাশি সিনেমা হলটিও থাকবে। মনে হচ্ছে এটা করাই বুদ্ধি মানের কাজ হবে।’

গত দেড় বছর ধরে হলটির বুকিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন বুকিং এজেন্ট মো. শাহজাহান। মনোয়ারে ছবি প্রদর্শন নিয়ন্ত্রণ করতেন তিনি। সমকাল অনলাইকে সিনেমা হলটি আপাতত বন্ধের কথা জানিয়েছেন তিনিও। তিনি বলেন, মনোয়ার চূড়ান্তভাবে বন্ধ হচ্ছে না। নির্বাচনের পর আবার চালু হবে।’ পাশাপাশি দুই ভাইয়ের মধ্যে কিছুটা হলের ভাড়া নিয়ে কিছুটা কোন্দল কাজ করছে বলেও জানান তিনি।  

জানা গেছে, ২ ডিসেম্বর থেকে বন্ধ রয়েছে মনোয়ার সিনেমা হল। কলকাতা থেকে আমদানি করা ছবি ‘ভিলেন’ সর্বশেষ প্রদর্শন করা হচ্ছিল হলটিতে।  দুদিন চালানোর পরেই হলটি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এর আগে ২০১৪ সালের দিকে মনোয়ার সিনেমা হল বন্ধ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যৌথ প্রযোজনার ছবি ও জাজ মাল্টিমিডিয়া থেকে নির্মিত ছবিগুলো প্রদর্শনের পর হলটি ঘুরে দাঁড়ায়। দর্শক হলে আসা শুরু করে। পরবর্তীতে মনোয়ার সিনেমা হলে জাজের মেশিন বসানো হয়। এখন যৌথ প্রযোজনায় ছবি নির্মাণ একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে বলেই সিনেমা সংকটে ভোগছে মনোয়ার। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

আলিয়ার প্রেমিকের নাম জানালেন বাবা


আরও খবর

বিনোদন

আলিয়া ভাট- ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

আলিয়া ভাট ও রণবীর কাপুরের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জনের শেষ নেই। এতদিন ধরে তারা তাদের সম্পর্কের ব্যাপারে মুখে কুলুপ এটেঁছিলেন। শুধুই তাদের মাঝে বন্ধুত্ব, এর বেশী কিছু নেই বলে উড়িয়ে দিয়েছেন সব গুঞ্জন। 

তবে তাদের সম্পর্কের বিষয়ে এবার এড়িয়ে যাওয়ার কোন সুযোগ পাননি তারা; কারণ রণবীরের সঙ্গে প্রেমের কথা ফাঁস করলেন আলিয়ার বাবা নিজেই।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, আলিয়া ভাট আর রণবীর কাপুর একসঙ্গে প্রথম পর্দায় আসছেন অয়ন মুখার্জি পরিচালিত 'ব্রহ্মাস্ত্র' ছবির মাধ্যমে। আর এই ছবির শুটিংয়ে রণবীর ও আলিয়া একে অপরের সঙ্গে ক্রমে ঘনিষ্ঠ হন। 

এমনকি এই তারকা জুটিকে এখন প্রায়ই একসঙ্গে দেখা যাচ্ছে। তখন থেকেই বি-টাউনে শুরু হয় তাদেরকে নিয়ে মাতামাতি। কিন্তু তাদের সম্পর্ক নিয়ে কেউ এখন পর্যন্ত মুখ খোলেননি। তবে তারা দু'জন তাদের সম্পর্কের কথা স্বীকার না করলেও সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে পরিচালক মহেষ ভাট মেয়ের সম্পর্কের কথা নিশ্চিত করেন।

আলিয়া-রণবীরের সম্পর্ক নিয়ে সাক্ষাৎকারে মহেষ বলেন, 'হ্যাঁ আপনারা তাদের সম্পর্কের বিষয়ে ঠিকই শুনেছেন, তারা দু'জন একে অপরকে ভালোবাসেন।'

তিনি আরও বলেন, রণবীরকে নিয়ে নতুন করে পরিচয় করে দেওয়ার দরকার নেই। আমি তাকে খুব ভালোবাসি, সে অত্যন্ত উদার মনের মানুষ।তারা তাদের সম্পর্ক নিয়ে বেশ সিরিয়াস বলে মন্তব্য করেন তিনি।'

রণবীর কাপুর ও অালিয়া ভাট 

আলিয়ার ব্যক্তিগত জীবনের পাশাপাশি পেশাগত জীবনও এগিয়ে সাফল্যের দিকে ধাবিত হচ্ছেন। তার অভিনীত 'রাজি' ছবিটি বক্স অফিসে দুর্দান্ত সাফল্য পেয়েছে। এখন অমিতাভ বচ্চন আর রণবীর কাপুরের সঙ্গে 'ব্রহ্মাস্ত্র' ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত আছেন আলিয়া। 

এরপর রণবীর সিংয়ের সঙ্গে 'গলি বয়' এবং বরুণ ধাওয়ানের সঙ্গে 'কলঙ্ক' ছবিতে দেখা যাবে আলিয়াকে।

সংশ্লিষ্ট খবর