বিনোদন

আমি আমার মতো চলছি, থামছি না: মনীষা

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ১১ নভেম্বর ২০১৮

আমি আমার মতো চলছি, থামছি না: মনীষা

মনীষা কৈরালা

  অনিন্দ্য মামুন

বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা। বলিউডের অন্যসব তারকাদের চেয়ে অনেক দিক দিয়েই আলাদা তিনি। নেপালের শীর্ষস্থানীয় এক রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম। মিষ্টি হাসির অভিনয়ের জন্য নব্বই দশকের হাজার হাজার তরুণের স্বপ্নে নায়িকা ছিলেন তিনি। একসময় আক্রান্ত হন ক্যান্সারে। দীর্ঘ দিন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে বিজয়ী হয়ে ফিরেছেন আপন ঘরে। শুরু করেন জীবনের নতুন ইনিংস। পর্দার বাইরেও অন্য এক মনীষা কৈরালাকে জানেন সবাই। একজন সামাজিক কর্মী হিসেবে বিশ্ব দরবারে পরিচিত তিনি। পরিচিত লেখক হিসেবেও। নিজের জীবনের সংগ্রাম নিয়ে লিখেছেন প্রথম গ্রন্থ ‘দ্য বুক অব আনটোল্ড স্টোরিজ’।   ‌বিশ্বের অন্যতম সাহিত্য উৎসব ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লিট ফেস্টে’র অতিথি হয়ে এ তারকা এখন ঢাকায়। শুনালেন তার জীবনের নানা গল্প। 

সমকাল: বাংলাদেশে এসে কেমন লাগছে?

মনীষা কৈরালা: বাংলাদেশের এতো বড় একটা আয়োজনে আমাকে অতিথি করেছেন। এই জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। সাহিত্যের এতো বড় আসরে উপস্থিত হওয়া যে কোন লেখকের জন্যই আনন্দের। এখানে এসে আমার বই নিয়ে কথা বলছি। এটা আমার জন্য অন্য রকম ভালো লাগার। 

মনীষা কৈরালা

সমকাল: ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে জিতেছেন। এর সবচেয়ে কঠিন পর্ব কোনটা ছিল?

মনীষা কৈরালা: আমার পরিবার, বিশেষ করে মা প্রতি পদক্ষেপে আমাকে সাহায্য করেছেন। ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় যন্ত্রণায় কুঁকড়ে যেতাম, কান্নাকাটি করতাম। নিউ ইয়র্কে যখন চিকিৎসার জন্য ছিলাম, নিজের চোখে দেখেছি আমরা মানুষ কতটা একা!  হতাশ হয়ে বসে থাকত। মনে মনে ঠিক করেছিলাম, নিজেকে এ ভাবে শেষ করব না। যদি মরতেই হয়, সাহসের সঙ্গে লড়াই করব। আমার চুল যখন পুরো উঠে গিয়েছিল, তখন আমি খুব ভেঙে পড়েছিলাম। মা বোঝাতেন যে, আমি নিজেই পারব নিজের সঙ্গে লড়াই করতে। হাল ছাড়িনি। তাই হয়তো এই লড়াইয়ে জিততে পারলাম। 

সমকাল: ‘দ্য বুক অব আনটোল্ড স্টোরিজ’ তো সেই জয়েরই একটা দলিল? 

মনীষা কৈরালা: সেটা বলতে পারেন। তবে এটাতে আমি অনেক কিছু বলতে চেয়েছি। মানুষকে বলতে চেয়েছি হাল ছাড়া আমাদের কাজ নয়। আমাদের সংগ্রাম করতে হবে। চূড়ান্ত বিজয়ের জন্য। প্রতিটি কাজেই আমাদের লড়াই করে জিততে হয়। আমৃত্যু মানুষকে লড়াই করতেই হবে। আর এ জন্য আমাদের প্রাণবন্ত থাকাও বাঞ্চনীয়।

সমকাল:আপনার এই জয়ী হওয়াটা অনেকেই আপনার পূনজন্ম ভাবছেন?

মনীষা কৈরালা: পূনজন্ম শব্দটা আমার কাছে খুব একটা গুরুত্বের নয়। এটা নিয়ে ভাবিও না আমি। তবে কাছে সাহসী থাকা, প্রাণবন্ত থাকাটা জরুরী। জীবনের  দুই পিঠই আমার দেখা। ভালো খারাপ দুটির সঙ্গে থেকেছি বলতে পারেন। জীবনের কঠিন সময়টাকে আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি রাখিনি। আমি আমার মতো চলছি। থামছি না। থামতে চাইও না। 

সমকাল:বলিউডে এখনও নারী শিল্পীরা তেমনভাবে সামনে আসতে পারছে না। নায়ক নির্ভরই থাকছে। বিষয়টি আপনি কীভাবে দেখছেন? 

মনীষা কৈরালা: আপনি নারী-পুরুষের যে বিষয়টি জানতে চাইলেন এই বিভেধটা শুধু বলিউড নয়, সব ক্ষেত্রেই কিন্তু রয়েছে?  খেয়াল করবেন, বাণিজ্যিক ও ভিন্নধারার ছবির মধ্যে আমরা আমাদের সময়ে অনেকটা সমতা রাখতে পেরেছিলাম। এক সময়ে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিকও পেয়েছি আমরা। এখনও বলিউডে নায়কদের চেয়ে অনেক নায়িকারাই পারিশ্রমিক বেশি নিচ্ছেন। যারা ভালো করছেন তারা প্রাপ্যটা অবশ্যই পাবেন। এ ক্ষেত্রে নারী-পুরুষ বিভেদ-দেখিনা আমি। 

সমকাল: আপনার কাজগুলোকো কীভাবে মূল্যায়ণ ও নির্বাচন করে থাকেন? 

মনীষা কৈরালা: আমি যা করি ভালোবেসে করি। আমার প্রতিটি কাজের মাঝেই আমার অন্যরকম ভালোবাসা। আর চলচ্চিত্রের কাজ নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমি গল্পটা আগে দেখি। এরপর আমার চরিত্র। পথ চলার রাস্তাটাও পরিমাপ করার চেষ্টা করি। 


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

সালমান শাহ হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ফের পেছাল


আরও খবর

বিনোদন

সালমান শাহ- ফাইল ছবি

  আদালত প্রতিবেদক

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহের মৃত্যুর ঘটনায় করা মামলার অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৩ এপ্রিল পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন আদালত।  সোমবার মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল; কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) প্রতিবেদন দাখিল করতে না পারায় ঢাকা মহানগর হাকিম বাকী বিল্লাহ নতুন দিন ধার্য করেন। 

২০১৬ সালের ৬ ডিসেম্বর আদালত এ মামলা অধিকতর তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করতে পিবিআইকে নির্দেশ দেন। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ১১/বি নিউ ইস্কাটন রোডের নিজ বাসা থেকে বাংলা সিনেমার স্টাইল আইকন সালমান শাহর (চৌধুরী মো. শাহরিয়ার ইমন) লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা করেন তার বাবা কমরউদ্দিন। যা পরবর্তীতে রূপান্তরিত হয় হত্যা মামলায়। চূড়ান্ত প্রতিবেদনে আসে আত্মহত্যা করেছেন সালমান শাহ। এ নিয়ে রিভিশন করে সালমানের পরিবার। পরে তার মা নীলা চৌধুরী বাদী হিসেবে আসেন। তিনি আগের তদন্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন করেন। সালমান শাহর স্ত্রী সামিরা হক, চলচ্চিত্র প্রযোজক ও ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাইসহ ১১ জনকে ছেলের মৃত্যুর জন্য দায়ী করেন নীলা চৌধুরী। 

মামলার অপর আসামিরা হলেন- সালমান শাহর স্ত্রী সামিরা হক, সামিরার মা লতিফা হক লুসি, রেজভী আহমেদ ওরফে ফরহাদ, এফডিসির সহকারী নৃত্য পরিচালক নজরুল শেখ, ডেভিড, আশরাফুল হক ডন, রাবেয়া সুলতানা রুবি, মোস্তাক ওয়াইদ, আবুল হোসেন খান ও গৃহপরিচারিকা মনোয়ারা বেগম।

সে সময় ঘটনাটিকে আত্মহত্যা ধরে অপমৃত্যুর একটি মামলা হলেও তাতে আপত্তি জানায় তার পরিবার। তারপর বিষয়টি দীর্ঘদিন ঝুলে থাকার পর ২০১৬ সালের ৬ ডিসেম্বর আদালত পিবিআইকে পুনঃতদন্তের নির্দেশ দেন। এর আগে র‌্যাবকে অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হলেও দায়রা জজ আদালতে তা আটকে যায়।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

জাহালমকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণে নিষেধাজ্ঞা চাইবে দুদক


আরও খবর

বিনোদন

'ভুল আসামি' হয়ে ২৬ মামলায় তিন বছর কারাগারে থাকার পর হাইকোর্টের আদেশে মুক্তি পাওয়া জাহালম

  সমকাল প্রতিবেদক

'ভুল আসামি' হয়ে ২৬ মামলায় তিন বছর কারাগারে থাকার পর হাইকোর্টের আদেশে মুক্তি পাওয়া জাহালমকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের উপর নিষেধাজ্ঞার আবেদন করবে র্নীতিমন কমিশন (দুদক)।  মঙ্গলবার হাইকোর্টের সংশ্নিষ্ট শাখায় হলফনামা দিয়ে এই আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন দুদকের আইনজীবী খুরশী আলম খান।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, 'সম্প্রতি দুটি সংবাপত্রের খবরে এসেছে জাহালমের জীবনের গল্প নিয়ে সিনেমা বানাতে যাচ্ছেন কোনো এক পরিচালক। এখানে দুদকের আপত্তি হচ্ছে, জাহালমের ঘটনাটি এখনো বিচারাধীন। ফলে বিচারাধীন বিষয় নিয়ে সিনেমা হতে পারে না। এ জন্যুটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে ওই চলচ্চিত্র নির্মাণের উপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি আবেদন প্রস্তুত করা হয়েছে। মঙ্গলবার হলফনামা আকারে ওই আবেদন হাইকোর্টে দাখিল করা হবে।'

গত ৩ ফেব্রয়ারি সব মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়ে ওইদিনই জাহালমকে মুক্তির নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ওই আদেশের কয়েক ঘণ্টা পরই কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। আবু সালেক নামে একজনের বিরুদ্ধে সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির ২৬টি মামলা রয়েছে।

কিন্তু আবু সালেকের বদলে জেল খাটেন টাঙাইলের পাটকল শ্রমিক জাহালম। পরে এ বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে হাইকোর্ট তাকে মুক্ত করার নির্দেশ দেন। এরপরই জাহালমের জীবনের গল্প নিয়েই চলচ্চিত্র নির্মাণের সিদ্ধান্তের কথা বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমকে জানান মারিয়া তুষার নামের একজন নির্মাতা। এরই মধ্যে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে নাম নিবন্ধনও করেছেন এই পরিচালক। জাহালমের নামের সঙ্গে মিলিয়ে ছবির নাম ঠিক করেছেন 'জাহালম'।


সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

টিভি চ্যানেল নিয়ে আসছেন সালমান


আরও খবর

বিনোদন

সালমান খান - ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

বলিউডের সফল অভিনেতা সালমান খানকে নিয়ে হামেশায় কোন না কোন তথ্য সংবাদমাধ্যমে জায়গা করে নিচ্ছে। এবার তার ভক্তদের জন্য সুসংবাদ দিলেন বলিউডের এই প্রভাবশালী অভিনেতা।

পিংকভিলা জানায়, তার প্রযোজনায় চলছে জনপ্রিয় টিভি কৌতুকানুষ্ঠান ‘কপিল শর্মা শো’র দ্বিতীয় মৌসুম। জানা গেছে, শিগগিরই নিজের টেলিভিশন চ্যানেল উদ্বোধন করতে চলেছেন এই তারকা।

সালমান খান টিভি চ্যানেল চালুর পাশাপাশি , নতুন ব্র্যান্ড ‘বিয়িং চিলড্রেন’ও শুরু করতে চলেছেন।

নিজের চ্যানেলের জন্য প্রচুর কনটেন্ট  প্রয়োজন সালমান খানের। এরই মধ্যে সেসব নিয়ে আলোচনা চলছে। লোকজনও খোঁজা শুরু করেছেন।

খবরে প্রকাশ, টিভি চ্যানেলের বাইরেও নিজের ব্র্যান্ড ‘বিয়িং হিউম্যান’ সম্প্রসারণ করতে চলেছেন সালমান খান। যার নাম হতে পারে ‘বিয়িং চিলড্রেন’। শুধু সিনেমাই নয়, বিনোদন বিশ্বে আরো বিনিয়োগ করতে চান এ তারকা।

সম্প্রতি তিনি আলি আব্বাস জাফর পরিচালিত ‘ভারত’ ছবির শুটিং শেষ করেছেন। এতে তার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন ক্যাটরিনা কাইফ। সালমান-ক্যাটরিনা ছাড়াও এতে রয়েছেন দিশা পাটানি, নোরা ফাতেহি, সুনীল গ্রোভার, জ্যাকি শ্রফ ও টাবু।

সংশ্লিষ্ট খবর