বিনোদন

এ কে চৌধুরীর রোমান্টিক মিউজিক ভিডিও প্রকাশ

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৮

এ কে চৌধুরীর রোমান্টিক মিউজিক ভিডিও প্রকাশ

মিউজিক ভিডিও'র একটি দৃশ্য

   অনলাইন ডেস্ক

কণ্ঠশিল্পী এ কে চৌধুরীর প্রথম মিউজিক ভিডিও ‘জানি না’ প্রকাশ হয়েছে। এইচটিএম রেকর্ডের ইউটিউব চ্যানেলে গত সোমবার প্রকাশ পায় সফট মেলোডি ও রোম্যান্টিক আবহের এই গানটি। গানে কণ্ঠ দেওয়ার পাশাপাশি মডেলও হয়েছেন এ শিল্পী।

তার সঙ্গে জুটি হয়েছেন এ প্রজন্মের মডেল মারিয়া ননী। গানটি প্রযোজনা করেছে এমকে প্রডাকশন হাউস।

এই গান প্রসঙ্গে এ কে চৌধুরী বলেন, গানের কথা ও সুরের সঙ্গে মিল রেখে ভিডিও নির্মিত হয়েছে। যেখানে বর্তমান সময়ে প্রেমিকযুকলদের একটা ছায়া দেখা হয়েছে। ধুমধারাক্কা কিছু করতে চাইনি। চেয়েছি গান এবং ভিডিওটি দর্শকদের মন ছুঁয়ে যাক।

এমন কাজ করার সুযোগ পেয়েছি এমকে প্রডাকশন ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আশা করছি, আগামীতে এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আরো ব্যতিক্রমী কাজ করতে পারব।

‘জানি না’ গানটির কথা লিখেছেন এ কে চৌধুরী, সুর-সংগীত করেছেন রুম্মান চৌধুরী। ঢাকা ও তার আশাপাশের বিভিন্ন লোকেশনে গানটির চিত্রায়ন করা হয়েছে। গানটি প্রকাশের পর বেশ প্রশংসিত হয়েছে। গানটি দেখে অনেকেই ইতিবাচাক মতামত জানিয়েছেন ইউটিউবের কমেন্ট বক্সে।

এমকে প্রোডাকশন হাউজের প্রযোজনায় ‘জানি না’ হলো প্রথম মিউজিক ভিডিও। আগামীতে এই প্রতিষ্ঠান থেকে নিয়মিত নাটক, টেলিফিল্ম, মিউজিক ভিডিও ছাড়াও সিনেমা নির্মাণ করা হবে।

ভিন্নধর্মী, মানসম্মত ও দর্শকদের রুচিকে প্রাধান্য দিয়ে ভালো কাজ উপহার দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে এমকে প্রোডাকশন কর্তৃপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

'নায়ক' গেলো সেন্সরে


আরও খবর

বিনোদন
'নায়ক' গেলো সেন্সরে

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

  অনলাইন ডেস্ক

ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় নায়ক বাপ্পি ও নবাগতা অধরা খান জুটির নতুন ছবি 'নায়ক'। গত ১৬ সেপ্টেম্বর ইউটিউবে প্রকাশ হয় ছবিটির প্রথম গান  ‘এলোমেলো'। প্রচার প্রচারণার অভাবে গানটি খুব একটা সাড়া ফেলতে না পারলেও ইমরান ও কনার গাওয়া গানটিতে বাবা যাদবের কোরিওগ্রাফি প্রশংসিত হয়েছে। এবার যুগল পরিচালক ইস্পাহানি আরিফ জাহান জানালেন ২০ সেপ্টেম্বর সেন্সরে জমা দেয়া হয়েছে ছবিটি।

আগামী রবিবার ছবিটি সেন্সরে প্রদর্শিত হবে বলে সেন্সর কর্তৃপক্ষের বরাতে জানা গেছে। সমকাল অনলাইনকে পরিচালক বলেন, 'নায়ক দর্শকরা যে ধরনের ছবি চায় সেটা মাথায় রেখেই নির্মাণ করা হয়েছে। তাই ছবিটি তাড়াহুড়া করে  আমি মুক্তি দিতে চাই না। দর্শকদের আমরা একটি ভালো সিনেমা উপহার দেয়ার চেষ্টা করছি। ছবিটি সেন্সরে জমা দেয়া হয়েছে। সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ার পরই ভালো দিনক্ষণ দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে কবে মুক্তি দেয়া হবে।'

ছবিটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাপ্পি চৌধুরী। তিনি বলেন, 'নায়ক অন্যতম ভালো একটি ছবি হবে। সঠিকভাবে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে ছবিটি মুক্তি দিলে আমার বিশ্বাস দর্শকরা ছবিটি গ্রহণ করবেন। কারণ ছবিটিতে বিনোদনের সব কিছুই রয়েছে।'

ছবিটির নায়িকা অধরা বলেন, ’ছবিটি নিয়ে আমার অনেক প্রত্যাশা। ছবিটির সব কিছুই প্রপারলি করার চেষ্টা করেছেন পরিচালক। আশা করি মুক্তি পেলে দর্শকরা ছবিটি দেখে আনন্দ পাবেন।'

'নায়ক' প্রযোজনা করেছে যাদুরকাঠি মিডিয়া। ছবিটির গল্প লিখেছেন দেলোয়ার জাহান দিল।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

'রণবীরের সঙ্গে আমার রসায়ন জমে যাবে'


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

বলিউড সুন্দরী কারিনা কাপুর খান। সম্প্রতি মালদ্বীপ ঘুরে এলেন তিনি। ফিরেই শুরু করে দিয়েছেন নতুন ছবির কাজ। করণ জোহর প্রযোজনা সংস্থার 'তখত' নামের এ ছবিতে দেখা যাবে বেবো বেগমকে। 'বীরে দি ওয়েডিং'  সুপার হিট হওয়ার পর এখন করিনার ঝুলিতে দু'দুটো ছবি। একদিকে অক্ষয় কুমারের বিপরীতে 'গুড নিউজ' ছবিতে অভিনয় করছেন করিনা। অন্যদিতে তখত-এ রণবীর সিং এর দিদির চরিত্র দেখা যাবে তাকে। 

মা হওয়ারে পরে তিনি যেভাবে ফের বলিউডে ফিরে এসেছেন তাতে বেশ খুশি বেবো। ৩৮এর জন্মদিনের শুভক্ষণে 'সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম'কে দেওয়া একা সাক্ষাৎকারে এনিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন করিনা।  তিনি এ বছরটা ব্যক্তিগত ও পেশাদারি জীবন দুদিক থেকেই বেশ খুশি তিনি। 

এদিক করিনাকে তার বক্স অফিস নাম্বার নিয়ে প্রশ্ন করা হলে চটপট জবাবে কাপুর কন্যা বলেন, '‌হ্যাঁ, আমি একজন ফিল্ম চাইল্ড। তাই এই বিষয়টি প্যাশন থেকেই এসেছে। আর সিনেমার বিষয়টির সঙ্গে আমার বোঝাপড়া রয়েছে বরাবরই।'

তার পরিচালনা কিংবার প্রযোজনায় আসার ইচ্ছে রয়েছে কিনা, সেবিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সোজা না বলে দেন বেবো। পাশাপাশি তুতো ভাই রণবীর কাপুরের সঙ্গে তিনি স্ক্রিন শেয়ার করবেন কিনা সেটা জানতে চাওয়া হলে কারিনা বলেন  'অবশ্যই আমি রণবীরের সঙ্গে অভিনয় করতে চাই। এটা একটা দারুণ ব্যপার হবে। রণবীরের সঙ্গে আামর রসায়নটা দেখার মতো হবে। আমি ওকে ভীষণ ভালোবাসি। তাই এমন প্রস্তাব এলে কখনওই না করব না।  আশা করি, কেউ না কেউ আমাদের জন্য চিত্রনাট্য লিখবে।'

'তখত'-এ রণবীর সিং এর বোনের ভূমিকায় করিনা কাপুরের সঙ্গে প্রথমবার অভিনয় করতে চলেছেন করিনা। তবে ভাই রণবীর কাপুরের সঙ্গে বেবোর এখনও অভিনয় করার সুযোগ হয়নি। যদিও 'তখত' রণবীর সিংয়ের ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করার জন্য রণবীর কাপুরের কাছে প্রস্তাব গেছে। তবে তিনি কোনও নেগেটিভ চরিত্র অভিনয় করতে চান না বলে সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। তাই এবারটাও করিনার ভাই রণবীরের সঙ্গে অভিনয় করার সুযোগ হল না।  তবে ফের কবে সেই সুযোগ আসে দর্শকরাও তা দেখার অপেক্ষায় থাকবে তা বলাই বাহুল্য।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

'জাফর ইকবাল আমার গান ছাড়া অন্য কারো কণ্ঠে লিপ দিতে চাইতেন না'


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

লক্ষ কোটি তরুণের প্রিয় শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। সেই ১৯৮২ সালে ‘তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে’ গান দিয়ে তার পথচলা শুরু। আধুনিক, ক্লাসিক্যাল এবং লোকগীতি সব ধরনের গানের এক উজ্জ্বল তারকা  তিনি। এবার  'এবং পূর্ণিমা' অনুষ্ঠানে পূর্ণিমার অতিথি হাজির হন তিনি।  এখানে হাজির হয়ে  জীবনের অনেক কথাই শেয়ার করেছেন চিরসবুজ এ গায়ক। জানিয়েছেন  প্রয়াত জনপ্রিয় নায়ক জাফর ইকবালের সঙ্গে তার বন্ধুত্বের  অনেক অজানা কথা।  

চলচ্চিত্রের গানেপ্লেব্যাক শুরু হয় কীভাবে? পূর্ণিমার এমন প্রশ্নের উত্তরে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন,  ১৯৮২ সালে নূর হোসেন বলাই পরিচালিত ‘ইন্সপেক্টর’ ছবিতে প্রথম প্লেব্যাক করি। এনিয়ে একটা মজার ঘটনা বলি। ১৯৮২ সালে যখন বিটিভিতে ‘তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে’ গানটি প্রচার হয় তখন স্বাভাবিকভাবে চলচ্চিত্র থেকে প্লেব্যাক করার ডাক এলো। প্রডিউসার রাকিব এবং ডিরেক্টর বলাই ভাই তারা আমাকে ডেকে বললেন, সিনেমায় গান করতে হবে। আমি বললাম সঙ্গীত পরিচালক কে? বললেন আলাউদ্দিন আলী। নামটা শুনে প্রথমে আমি ভয় পেয়ে গেলাম। কারণ ৮০’র দশকে আমরা যখন গান গাওয়া শুরু করি তখন আমাদের কয়েকজন আইকন ছিলেন। তাঁদের মধ্যে আলাউদ্দিন ভাই অন্যতম। তার গান করব? এতো বিশাল ব্যাপার। তিনি নাকি বলেছেন আমার সাথে দ্বৈতকণ্ঠ দিবেন পাকিস্তানের পপ সম্রাট আলমগীর।


একদিন আলাউদ্দিন ভাই গান নিয়ে বসলেন। গান তুললাম। গান তোলার পর আলাউদ্দিন ভাই আমাকে বললেন, গানটা যেহেতু দ্বৈত তুমি আলমগীরের বাসায় যাও। একদিন আলমগীরের বাসায় গেলাম। গিয়ে দেখি সে স্কার্প দিয়ে মাথা ঢেকে বসে আছে। কোনো কথা বলছে না। আলাউদ্দিন ভাইকে বললাম, ভাই উনিতো আমার সাথে কথা বলছেন না। আলাউদ্দিন ভাই বললেন কাল তার রেকর্ডিং তাই প্রস্তুতি নিচ্ছে। বেশি কথা বললে নাকি গলা চুলকায়। এই দ্বৈত গানের মাধ্যমে শুরু হলো আমার প্লেব্যাক গানে পথচলা।

অনুষ্ঠানে প্রয়াত নায়ক জাফর ইকবারের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব নিয়ে কুমার বিশ্বজিত বলেন,  সঙ্গীত জীবনের শুরুতেই নায়ক জাফর ইকবালের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব গড়ে উঠে। তিনি আমাকে ভীষণ পছন্দ করতেন। কেন করতেন সেটা আমি জানি না। আলাউদ্দিন আলী ভাইয়ের সুরে জাফর ইকবালের অভিনীত ছবির প্লেব্যাক করি। জাফর ইকবাল বলতেন আমার গান ছাড়া অন্য কারো কণ্ঠে লিপ দিবেন না। তার প্রযোজিত প্রথম ছবি ‘প্রেমিক’-এ আমাকে অভিনয় করানোর খুব শখ ছিল। কিন্তু আমি রাজি হইনি। ছবির গান করতে কলকাতায় গেলাম। রেকর্ডিং শেষে যেদিন দেশে ফিরে আসি সেদিনই বিকেলে আমার বাসায় এলেন নায়ক জাফর ইকবাল। এসেই ‘দোস্ত’ বলেই ধুম করে একটা ঘুষি মারলেন পিঠে। বললাম, গান কী ভালো হয়নি? বললেন শুধু ভালো নাদারুণ হয়েছে। ছবির সবগুলো গান কলকাতায় রেকর্ডিং হয়েছিল।  মিউজিকের প্রতি ওর ভীষণ রকম ভালো লাগা ছিল। জাফর ইকবালও  অনেক ভালো গান গাইতেন । অনেক স্মার্ট ছিলেন শুধু পোশাক আশাকে না, ওর রুচিবোধ, ইন্টেলেকচুয়াল হাইট, ফ্যাশন সচেতনতা সবই ছিল নজর কাড়ার মতো। শোবিজের আর কারো মধ্যে এরকম দেখিনি। আমি নিজেই দেখেছি তার বাসার শো র‌্যাকে তিনশ রকমের জুতা। জুতা রাখার আলাদা একটা কর্ণার ছিল। জুতার সঙ্গে মিল রেখে ড্রেস পরতেন। এখনকার কোনো নায়কের মধ্যেও এমন ফ্যাশন সচেতনতা আছে কিনা জানি না।'

এমন সব অজানা কথাগুগুলোই পূর্ণিমার সঙ্গে আড্ডায় বলেছেন কুমার বিশ্বজিৎ। এছাড়াও তার নিজেদের জীবনের পছন্দ-অপছন্দ, ভালো লাগা, মন্দ লাগা সহ নানান বিষয় বলেছেন তিনি। সম্প্রতি রাজধানীর তেজগাঁওস্থ বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া স্টুডিওতে পর্বটির রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে। 

সোহেল রানা বিদ্যুতের প্রযোজনা ও অনিন্দ্য মামুনের গ্রন্থনায় অনুষ্ঠানটি শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর)  রাত ১০টায় আর টিভিতে প্রচার হবে।  

সংশ্লিষ্ট খবর