বিনোদন

'বয়সে ছোট ছেলেদের প্রেমে অবশ্যই পড়া যায়'

প্রকাশ : ১৫ মে ২০১৮

'বয়সে ছোট ছেলেদের প্রেমে অবশ্যই পড়া যায়'

  অনলাইন ডেস্ক

অসম বয়সের প্রেমের বিষয়ে টালিউড অভিনেত্রী মোনালিসা বলেছেন, কাউকে ভালো লাগলে বয়স কোনো বিষয়ই নয়।  এক্ষেত্রে বয়সে ছোট ছেলেদের প্রেমে অবশ্যই পড়া যায়। সম্প্রতি কলকাতার অনলাইন পোর্টাল এবেলায় দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি। 

মোনালিসা বলেন, সব কিছু বাদ দিয়ে, ভাললাগার অনুভূতিটাই প্রধান। দেবর-ভাবীর সম্পর্ক নিয়ে অনেক বাঙালির মধ্যেই বেশ উন্মাদনা কাজ করে। এ ধরনের সম্পর্কে যৌনতা বিষয়টা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে। তবে শুধু শরীর দিয়ে কোনো সম্পর্ক টিঁকতে পারে না। আত্মিক ও মানসিক যোগাযোগটা থাকতেই হয়। আমি সম্পর্কের সেই যোগাযোগে বিশ্বাস করি। শুধু বয়সে বড় বা বয়সে ছোট ছেলের কথা বলছি না, যে কোনো সম্পর্কের ক্ষেত্রেই এটা প্রযোজ্য।

বয়সে ছোট ছেলেদের সঙ্গে প্রেম করাটা খুব দারুণ ব্যাপার উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্যক্তিগত জীবনে আমার তেমন কোনো অভিজ্ঞতা নেই, কিন্তু অভিনেত্রী হিসেবে রয়েছে।

পরকীয়ার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আবেদনময়ী এই অভিনেত্রী বলেন, পরকীয়া বিষয়ে একেকজন মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি একেক রকম। বেশিরভাগই অবশ্য পরকীয়াকে সমর্থন করেন না। তবে এই ধরনের সম্পর্ক হঠাৎ করে তৈরি হতে পারে। সবটাই নির্ভর করছে একটা বিবাহিত সম্পর্ক কতোটা সুখের, এর সঙ্গে জড়িয়ে থাকা মানুষগুলো কতটা সুখী তার ওপরে। আমি ঠিক এই বিষয়টা নিয়ে কোনোদিন কিছু ভাবিনি। 

নিজের বিবাহিত জীবনের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমার কাছে আমার স্বামী সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা দু’জন দু’জনের ওপর খুব নির্ভর করি। ওকে ছাড়া অন্য কোনো মানুষের কথা ভাবতেই পারি না। তবে আবারও বলব, একেকজন মানুষের ভাবনা একেক রকম। এটা নিয়ে কারো দিকে আঙুল তোলার কোনো অধিকার আমার নেই। আমার ব্যক্তিগত মত হলো, পরকীয়া সম্পর্ককে প্রশ্রয় দেওয়া ঠিক নয়। সঙ্গীর সম্পর্কে অনুভূতিটা যেমনই হোক না কেন, সেটা না লুকিয়ে, খোলাখুলি কথা বলাই ভালো। 

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

কাস্টিং কাউচের ফাঁদে সৌমিলি!


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

কাস্টিং কাউচের ফাঁদে পড়ে সিনেমার কাজ হারাতে হয়েছে ভারতীয় অভিনেত্রী সৌমিলি বিশ্বাসকে।

দীর্ঘ পাঁচ বছর পর টেলিভিশন ধারাবাহিক ‘জয় বাবা লোকনাথ' দিয়ে পর্দায় ফেরা এই অভিনেত্রী আনন্দবাজার পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে একথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, কাস্টিং কাউচ ফেস করেছি। সে জন্য কিছু বড় ব্যানারের ছবি চলে গিয়েছে।

সৌমিলি বলেন, কখনও সরাসরি কেউ কিছু বলেননি। হয়তো কেউ বলেছে,  না এটা কর না। তা হলে হবে। কিন্তু সেটা তো আমি করতে পারব না।

এই অভিনেত্রী বলেন, ২০ বছরে ইন্ডাস্ট্রিতে হয়তো কম কাজ করেছি। কিন্তু আমার চরিত্র নিয়ে কেউ কোনওদিন কিছু বলতে পারেনি। এটা নিয়ে আমি মাথা উঁচু করে থেকেছি।

কাজ থেকে দূরে থাকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অবশ্যই ডিপ্রেশন এসেছিল। এটা তো লুকিয়ে লাভ নেই। আমার পরিবারকে ধন্যবাদ দেব। আমার হাজব্যান্ড খুব ভাল বন্ধু। আমাকে ক্রমাগত সাপোর্ট করে গিয়েছে।

সৌমিলি বলেন, বাবা-মা বুঝিয়েছে। বলত, হয় পলিটিক্সে ঢোক, বোঝ, কর। আর না পারলে দুঃখ করো না। যেটুকু মাথা উঁচু করে করতে পারছ, সেটুকুই থাক।

এই মুহূর্তের ব্যস্ততা নিয়ে তিনি বলেন, ‘লোকনাথ'-এর পাশাপাশি নাচের স্কুল চলছে, অ্যাঙ্কারিং চলছে। আর একটা মেগার অফার এসছিল। কিন্তু একসঙ্গে অনেকগুলোতে জাগলিং করতে পারি না আমি।


সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

‘ধড়ক’-এর প্রিমিয়ারে কাঁদলেন জাহ্নবী


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

জাহ্নবী’র প্রথম ছবি ‘ধড়ক’ নিয়ে সবচেয়ে বেশি উৎসাহ ছিল তার মা শ্রীদেবীর। কিন্তু ‘ধড়ক’ মুক্তির আগেই পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নেন শ্রীদেবী। আর তাই ‘ধড়ক’ এর প্রিমিয়ারে মা’কে বেশি মনে পড়ছে জাহ্নবীর।

বৃহস্পতিবার টিম ‘ধড়ক’ একটি বিশেষ স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করেছিল মুম্বাইয়ের জুহুতে। সেখানে দুই মেয়ে জাহ্নবী এবং খুশিকে নিয়ে যান বনি কাপুর। সঙ্গে ছিলেন অর্জুন কাপুর। সেখানে বাবাকে জড়িয়ে ধরে অঝোরে কেঁদে ফেলেন জাহ্নবী।

যশরাজ ফিল্ম স্টুডিওতে এ দিন জাহ্নবীকে শুভেচ্ছা জানাতে হাজির ছিলেন বলিউডের প্রথম সারির প্রায় সব তারকাই। রেখা, মাধুরী দীক্ষিত, করিশ্মা কাপুর, করণ জোহর, মল্লিকা অরোরা, কুনাল খেমু, সোহা আলি খান, সোনাক্ষী সিংহ-সহ একঝাঁক তারকা এ দিন হাজির হয়েছিলেন।

‘ধড়ক’-এ শাহিদ কাপুরের ভাই ঈশান খট্টরের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছেন জাহ্নবী। ছবির পরিচালক শশাঙ্ক খৈতান। প্রযোজক করণ জোহর। ‘ধড়ক’ আসলে মারাঠি রোম্যান্টিক ছবি ‘সাইরাত’-এর রিমেক। ‘সাইরাত’-এর রিমেক হলেও ‘ধড়ক’-এ নয়া চমকের ইঙ্গিত দিয়েছেন পরিচালক।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

শ্রীদেবী অভিনীত যে চরিত্রে অভিনয়ে আগ্রহী জানভী কাপুর


আরও খবর

বিনোদন

  অনলাইন ডেস্ক

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীদেবী কন্যা জানভী কাপুরের খুব শিগগিরই অভিষেক ঘটছে বলিউডে। জানভী অভিনীত প্রথম ছবি ‘ধড়ক’ মুক্তি পাচ্ছে আগামীকাল ২0 জুলাই।অনেকেই জানভীর চেহারার সঙ্গে তার মা প্রয়াত শ্রীদেবীর মিল খুঁজে পান। 

এ প্রসঙ্গে জানভী বলেন,‘ অনেকেই মনে করেন,আমি দেখতে আমার মায়ের মতো। এই কথা আমি সবসময়ই শুনি আসছি।’ তার প্রথম ছবি ‘ধড়কে’র ট্রেইলার দেখেও অনেকে এই মন্তব্য করেছেন।

অসংখ্য জনপ্রিয় ছবির নায়িকা ছিলেন শ্রীদেবী।তাকে নিয়ে দর্শকদের উন্মাদনাও ছিল অনেক। সম্প্রতি জানভীকে প্রশ্ন করা হয়েছিল তার মা শ্রীদেবী অভিনীত কোনো ছবি যদি রিমেক করা হয় তাহলে তিনি কোন ছবিতে অভিনয় করতে আগ্রহী হবেন?এর উত্তরে জানভী ঝটপট জানিয়েছেন, অবশ্যই ‘সাদমা’ ছবিতে। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘এটা খুই হৃদয়ষ্পর্শী একটি সিনেমা।আমি অনেকবার ছবিটি দেখেছি। আমার মনে হয়, আমার দেখা সব সিনেমার মধ্যে এটা সেরা।আমি ছবিতে আমার মায়ের চরিত্রে কিংবা কমল হাসানের চরিত্রেও অভিনয় করতে পারি যদি রিমেক ছবিতে জেন্ডার পরিবর্তনের কোনো সুযোগ থাকে’।

সূত্র : ডিএনএ   

সংশ্লিষ্ট খবর