শিক্ষা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

গানে গানে বন ধ্বংসের প্রতিবাদ

প্রকাশ : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

গানে গানে বন ধ্বংসের প্রতিবাদ

গান গেয়ে মানববন্ধন করছেন তারা- সমকাল

  চবি প্রতিনিধি

বন ধ্বংসের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) মানববন্ধন ও প্রতিবাদী গানের মিছিল করেছে ‘পরিবেশবীক্ষণ’ নামের একটি সংগঠন।

‘আমাজন থেকে সুন্দরবন এবং আমাদের দায়বদ্ধতা’ শিরোনামে মঙ্গলবার বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জয় বাংলা চত্ত্বরে এ মানববন্ধন করা হয়। মানববন্ধন শেষে বিভিন্ন প্রতিবাদী গান গেয়ে গেয়ে মিছিল করে  বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রদক্ষিণ করেন তারা।

দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে জ্বলতে থাকা আমাজনের দাবানল এবং সেই সঙ্গে সুন্দরবনে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন ও ক্যাম্পাসে লাগামহীন গাছ কাটার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বক্তারা।

মানবন্ধনে তারা বলেন, নিঃশ্বাস নেওয়ার জন্য যে অক্সিজেন আমরা প্রকৃতি থেকে বিনামূল্যে পাই, যে হারে বিশ্বজুড়ে বন উজাড় হচ্ছে তাতে করে অদূর ভবিষ্যতে এই অক্সিজেন গ্যাসও হাসপাতালের রোগীদের মত আমাদের সিলিন্ডারে করে কিনে নিতে হবে। দীর্ঘ দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে আমাজনে জ্বলছে পরিকল্পিত দাবানল, যাতে উজাড় হচ্ছে জীববৈচিত্র্য। আমাজন না থাকলে হানি হবে অক্সিজেনের উৎসের, বাড়বে কার্বন নিঃসরণ। এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ভারতীয় কোম্পানির প্রকল্পে সুন্দরবনের কোলঘেঁষে গড়ে তোলা হচ্ছে কয়লাভিত্তিক রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র। একইভাবে প্রকৃতি সংরক্ষণের নামে পাহাড়ের পরিবেশ ধ্বংস করছে এনজিওগুলো। চবি, জাবিতে চলছে উন্নয়ন প্রকল্পের নামে নির্বিচারে বৃক্ষনিধন। তাই অবিলম্বে বন, জীববৈচিত্র্য তথা বাস্তুতন্ত্র ধ্বংসের এই পাঁয়তারা রুখতে সর্বস্তরের মানুষকে রুখে দাঁড়াতে হবে।

বক্তারা আমাজনে মানবসৃষ্ট দাবানলের জন্য ব্রাজিলের প্রসাশনের তথা সাম্রাজ্যবাদী বিশ্বনেতৃত্বকে দায়ী করেন। তারা অবিলম্বে পৃথিবীর ফুসফুসখ্যাত এই আমাজন রেইন ফরেস্টকে ধ্বংসের পাঁয়তারা বন্ধের দাবি জানান। এছাড়াও বক্তারা চবি ক্যাম্পাসে সৌন্দর্য বৃদ্ধির নামে লাগামহীন বৃক্ষ নিধনের প্রতিবাদ জানান।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে পরিবেশ রক্ষার আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে বক্তারা চবি ক্যাম্পাসে ভবিষ্যতে পরিবেশ বিনাশী সকল প্রকল্প রুখে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন।

পরিবেশবীক্ষণের সংগঠক প্রত্যয় নাফাকের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, প্রাণীবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী গৌরচাঁদ ঠাকুর, লোকপ্রশাসন বিভাগের মাহবুবা জাহান রুমি, পালি বিভাগের উজ্জ্বল চৌধুরী মারমা, পদার্থবিদ্যা বিভাগের আশরাফী নিতু, বাংলাদেশ স্টাডিজ বিভাগের আবির এইচ তিতাস, ব্যাংকিং এন্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের ইফাজ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

মন্তব্য


অন্যান্য