শিক্ষা

চট্টগ্রাম ও বরিশাল

এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষণে জিপিএ-৫ পেল ৫৬ জন

প্রকাশ : ০১ জুন ২০১৯

এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষণে জিপিএ-৫ পেল ৫৬ জন

ফাইল ছবি

  চট্টগ্রাম ও বরিশাল ব্যুরো

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষার খাতা পুনঃনিরীক্ষণের মাধ্যমে নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪২ শিক্ষার্থী। সেইসঙ্গে ফেল থেকে পাস করেছে ৮০ জন।

এদিকে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ১৩০ পরীক্ষার্থীর ফল পরিবর্তন হয়েছে। এতে জিপিএ- ৫ প্রাপ্তির সংখ্যা আরও ১৪ জন বেড়েছে। এ ছাড়া পাশ করেছে ৪২ শিক্ষার্থী। সবমিলিয়ে এই দুই শিক্ষাবোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৬ জন এবং পাস করেছে ১২২ শিক্ষার্থী।

শনিবার চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান জানান, উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য এবার ১৯ হাজার ১৮৩ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করে। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণ শেষে ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪২ জন। ফেল থেকে পাস করেছে ৮০ জন। মোট ৪৯২ জন পরীক্ষার্থীর ফল পরিবর্তন হয়েছে। এর মধ্যে গ্রেড পরিবর্তন হয়েছে ৩৯৮ জনের। ফেল থেকে ফেল করলেও ফেলের বিষয় কমেছে ১৪ পরীক্ষার্থীর।

তিনি জানান, ১৯ হাজার ১৮৩ জন পরীক্ষার্থী ১০টি বিষয়ে উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করে। বিষয়গুলো হলো- গণিত, রসায়ন, ইংরেজি প্রথম পত্র ও ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র, বাংলা প্রথম পত্র ও দ্বিতীয় পত্র, বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, জীববিজ্ঞান, ইসলাম ধর্ম এবং পদার্থবিজ্ঞান। গত ৬ মে প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ছিল ৭৮ দশমিক ১১ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৩৯৩ জন পরীক্ষার্থী।

এদিকে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ১৩০ জন পরীক্ষার্থীর ফল পরিবর্তন হয়েছে। এতে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা আরও ১৪ জন বেড়েছে। এ ছাড়া আগে ফেল করা ৪২ পরীক্ষার্থী পুনর্মূল্যায়নে পাশ করেছে। অপর ৭৪ পরীক্ষার্থীর ফলের গ্রেড পরিবর্তন হয়।

এ তথ্যর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বরিশাল বোর্ডের সচিব বিপ্লব কুমার ভট্টাচার্য্য। তিনি জানান, এবার পুনঃনিরীক্ষণের জন্য ৮ হাজার ৪৮০ জন পরীক্ষার্থী মোট ১৫ হাজার ৯৮৫টি আবেদন করেছিল। শনিবার পুনঃনিরীক্ষণের ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

মন্তব্য


অন্যান্য