অর্থনীতি

চামড়া কিনে লোকসানে নওগাঁর ফড়িয়া ব্যবসায়ীরা

প্রকাশ : ১৪ আগষ্ট ২০১৯ | আপডেট : ১৪ আগষ্ট ২০১৯

চামড়া কিনে লোকসানে নওগাঁর ফড়িয়া ব্যবসায়ীরা

নওগাঁর চামড়ার হাট

  নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁয় কোরবানি পশুর চামড়া কিনে লোকসানে পড়েছেন ফড়িয়া ব্যবসায়ীরা। বেশি দামে চামড়া কিনে অস্থায়ী চামড়া হাটে বিক্রি করতে গিয়ে তারা লোকসানে পড়েছেন।

মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা জানান, হাটে বড় ব্যবসায়ীরা না আসায় চামড়ার দাম কমে গেছে। অন্যদিকে কোরবানিদাতারা চামড়ার দাম পাননি। অনেকে আবার ছাগলের চামড়া ফড়িয়াদের বিনামূল্যে দিয়ে দিয়েছেন।

সোমবার ঈদের দিন বিকেলে জেলার মান্দা উপজেলার দেলুয়াবাড়ী হাটে চামড়ার দাম বকরি ১০-১৫ টাকা, খাসি ৪০-৫০ টাকা, বকনা গরু ও ষাঁড় ১০০-২৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ছাগলের খাজনা ৫ টাকা এবং গরুর ২০ টাকা। ছাগলের চামড়া ১০ টাকায় বেঁচে ৫ টাকা খাজনা। অনেকে ছাগলের চামড়া বিক্রি না করে ফড়িয়াদের বিনামূল্যে দিয়েছেন।

নওগাঁ সদর উপজেলার মৌসুমী চামড়া ব্যবসায়ী ফজলুল হক জানান, প্রতি বছর কোরবানি ঈদে চামড়ার ব্যবসা করেন তিনি। এবছর চামড়া কিনে শহরে নিয়ে এসেছেন বিক্রি করতে। আড়তদাররা যেভাবে দাম করছেন লাভতো দূরের কথা পুঁজিই উঠবে না।

প্রসাদপুর বাজারের বাচ্চু মিয়া বলেন, ৪৮ হাজার টাকা দামের বকনা গরু দিয়ে এবার কোরবানি দিয়েছি। ভালো দামের আশায় ৫ কিলোমিটার দূর থেকে দেলুয়াবাড়ী হাটে চামড়া নিয়ে এসেছিলেন। দাম ধরেছিলাম ৪শ’ টাকা। কিন্ত ফড়িয়ারা ১২০ টাকা চামড়ার দাম বলেন। অবশেষে ওই দামেই চামড়া দিতে হয়েছে।

শহরের আরজী-নওগাঁ মহল্লার রাশেদুজ্জামান রাশেদ জানান, ৩৯ হাজার টাকায় একটি গাভি কোরবানি করেছেন তিনি। কোরবানির চামড়া মসজিদের মুয়াজ্জিমকে নিয়ে যেতে বার বার ফোন করলেও তিনি নিয়ে যাননি। চামড়াটি বাড়িতেই পড়ে থেকে গন্ধ ছড়াচ্ছে। 

চককানু গ্রামের ফরহাদ হোসেন জানান, ছাগল কোরবানি দিয়ে হাটে চামড়া বিক্রি করতে এসেছেন। ফড়িয়ারা চামড়ার দাম ১০ টাকা বলায় তিনি হতবাক হয়ে যান। খাজনা দিতে হবে ৫ টাকা। এজন্য তিনি বিনামূল্যে চামড়া ফড়িয়াদের দিয়ে দিয়েছেন।

মান্দার পাকুড়িয়া গ্রামের মৌসুমি ব্যবসায়ী সিদ্দিক বলেন, এবার চামড়া কিনে বিপাকে পড়েছেন। বড় ব্যবসায়ীরা হাটে না আসায় পানির দরে চামড়া বিক্রি হচ্ছে। ষাঁড়ের চামড়া ৩শ’ টাকায় কিনে ২০০-২৫০ টাকায় বিক্রি করতে হয়েছে।

কালীসফা গ্রামের রেজাউল ইসলাম বলেন, ছাগলের চামড়ার দাম ১০-১৫ টাকা। ওই দামে চামড়া কিনে লবণ ও শ্রমিক দিয়ে আরও ১০ টাকাসহ মোট ২০ টাকা খরচ হবে। কিন্তু সেই দামে তো আমরা বিক্রি করতে পারব না। তাই অনেকে ছাগলের চামড়া বিনামূল্যে দিয়েছেন।


মন্তব্য


অন্যান্য