অন্যান্য

ব্যাংকিং কমিশনের দরকার নেই: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৯

ব্যাংকিং কমিশনের দরকার নেই: পরিকল্পনামন্ত্রী

ফাইল ছবি

  সমকাল প্রতিবেদক

ব্যাংকিং কমিশনের দরকার নেই বলে মনে করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, এই কমিশন গঠনের মাধ্যমে বলা হবে গাড়ি দাও, বাড়ি দাও, টাকা দাও। এটা তাদের চাকরি ছাড়া কিছু হবে না। এই কমিশন সম্পর্কে সন্দেহ আছে।

শনিবার ডেইলি স্টার ভবনে প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে এক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমন মন্তব্য করেন। ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) ও ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার যৌথভাবে এ বৈঠকের আয়োজন করে।

আইসিএবির সভাপতি এ এফ নেসারউদ্দিনের সভাপতিত্বে সংগঠনের সাবেক সভাপতি হুমায়ন কবির, পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর, বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) জ্যেষ্ঠ গবেষণা ফেলো নাজনীন আহমেদ এতে বক্তব্য দেন। এ সময় বাজেটবিষয়ক দুটি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আইসিএবির কাউন্সিল সদস্য শাহাদাত হোসেন ও স্নেহাশীষ বড়ূয়া।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, জাতীয় রাজস্ব (এনবিআর) বোর্ডের ব্যাপক সংস্কার করা প্রয়োজন। তবে বলা সহজ হলেও তা করা কঠিন। তিনি আলাদাভাবে জেন্ডার বাজেট, শিশু বাজেট বা জেলা বাজেট করার প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, সরকার অনেক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এসব প্রকল্পে নারী ও শিশুর উন্নয়নে নানা খাত থাকে। ফলে কেন আলাদা বাজেট থাকতে হবে।

এম এ মান্নান বলেন, সরকারের ধারাবাহিকতায় সবার উপকার হয়। শুধু আওয়ামী লীগের ধারাবাহিকতা নয়, সামাজিক ধারাবাহিকতারও প্রয়োজন। একই সঙ্গে প্রয়োজন আইনের শাসনের ধারাবাহিকতা।

তিনি আরও বলেন, অনেক মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে পিপিপির (সরকারি-বেসরকারি-অংশীদারিত্ব) মাধ্যমে। এ খাতে বিনিয়োগে বেসরকারি উদ্যোক্তারা এগিয়ে আসছেন। বৈষম্য নিয়ে অনেক কথা হয়। সরকার এটা দূর করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) সভাপতি সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, সরকারি ব্যাংকে নিয়মিত মূলধন জোগান দিচ্ছে সরকার। এমনকি বেসরকারি ব্যাংককে উদ্ধার করা হচ্ছে। এটা ভালো উদাহরণ তৈরি করছে না। দু-একটা ব্যাংককে দেউলিয়া হতে দেওয়া উচিত।

মন্তব্য


অন্যান্য