ঢাকা

গোপালগঞ্জে সরকারি জায়গায় আ’লীগ কার্যালয় নির্মাণে বাধা

প্রকাশ : ১৪ জুন ২০১৯ | আপডেট : ১৪ জুন ২০১৯

গোপালগঞ্জে সরকারি জায়গায় আ’লীগ কার্যালয় নির্মাণে বাধা

সরকারি জায়গায় নির্মাণাধীন আওামী লীগ কার্যালয় -সমকাল

  গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জে কোটালীপাড়ায় সরকারি জায়গা দখল করে রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৪নং ওয়ার্ড কার্যালয় পূর্ণনির্মাণ কাজে বাধা দিয়েছে ইউনিয়ন ভূমি অফিস। এ নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ  ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানায়, ১০ বছর আগে উপজেলার মনোহার মার্কেটে রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৪নং ওয়ার্ড কার্যালয় নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে কার্যালয়টি জড়াজীর্ণ হয়ে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এ কারণে নেতাকর্মীরা কার্যালয়টি পূর্ননির্মাণের কাজ শুরু করেন। এ সময় রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা অসীম কুমার বিশ্বাস ও অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ নির্মাণ কাজে বাধা দেন।  

 রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সঞ্জয় বিশ্বাস বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে এই কার্যালয়ে বসে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি। কার্যালয়টি বর্তমানে জড়াজীর্ণ হয়ে পড়েছে। আমরা তাই পূর্ণনির্মাণের কাজ শুরু করেছি। কাজ শুরুর কিছুদিন পর ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা অসীম কুমার বিশ্বাস ও অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ কাজে বাধা দেন। 

তিনি অভিযোগ করে বলেন, অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ আমাদের কাছে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেছিলেন। ঘুষ না দেয়ায় তিনি এ নিয়ে পানি ঘোলা করছেন। রাধাগঞ্জ ইউনিয়নে হাজার হাজার স্থাপনা সরকারি জায়গায় রয়েছে। সেগুলো উচ্ছেদ করা হচ্ছে না। এমনকি নতুন স্থাপনা নির্মাণেও বাধা দেওয়া হচ্ছে না। আমাদের দুর্বল পেয়ে ওই অফিস সহকারী ষড়যন্ত্র করছেন।

এ বিষয়ে জানার জন্য ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা অসীম কুমার বিশ্বাসের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। 

অফিস সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ বলেন, স্যার (ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা) চিকিৎসার জন্য বর্তমানে ভারতে অবস্থান করছেন। আমাদের বিরুদ্ধে ঘুষ চাওয়ার আভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। সরকারি জায়গায় আওয়ামী লীগ অফিস নির্মাণ করা হচ্ছে। এ কারণে আমাদের অফিস থেকে বাধা দেওয়া হয়েছে। 

মন্তব্য


অন্যান্য