ঢাকা

মাদারীপুরে আওয়ামী লীগের ২২ নেতা বহিষ্কার

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৯ | আপডেট : ১১ জুন ২০১৯

মাদারীপুরে আওয়ামী লীগের ২২ নেতা বহিষ্কার

দুপুরে মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘোষণা দেওয়া হয় -সমকাল

  মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় শৃঙ্খলা ভেঙে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নেওয়ায় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের ২২ নেতাকে কার্য নির্বাহী কমিটি থেকে বহিষ্কার করেছে আওয়ামী লীগ। 

মঙ্গলবার দুপুরে মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। 

বহিষ্কৃতরা হলেন- মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী কমিটির সহসভাপতি সৈয়দ আবুল বাশার, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার খায়রুল হাসান নিটুল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ শাখাওয়াত হোসেন সেলিম, কার্য নির্বাহী সদস্য ও রাজৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মোতালেব মিয়া, সদস্য আব্দুর রব খান, চৌধুরী নূরুল আলম বাবু এবং সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মল্লিক, মজিবর রহমান খান, সোহরাব খান, সিরাজুল ইসলাম আবুল, ফারুক খান, আব্দুর রশিদ গৌড়া, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মমসাদউজ্জামান, নজরুল ইসলাম মুন্সী, আলী ইসলাম তালুকদার, সদস্য রেজাউল আলম বাচ্চু খান, মোহাম্মদ আলী মুন্সী, মনির হোসেন হাওলাদার, দেলোয়ার খান, জাহাঙ্গীর জমাদ্দার, মাহবুব হাওলাদার ও মজিবর রহমান। 

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন আহমেদ মোল্লা জানান, আগামী ১৮ জুন মাদারীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে। অপর দিকে মাদারীপুর ২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের ছোট ভাই অ্যাডভোকেট ওবাইদুর রহমান খান কালুও বিদ্রোহী প্রার্থী হন। এতে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে প্রচার-প্রচারণায় অংশ নেন জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কিছু নেতাকর্মী। পরে তাদের কারণ দর্শানোর জন্যে বলা হলেও কোন জবাব দেননি তারা। এরপর সোমবার কার্য নির্বাহী কমিটি দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সৈয়দ আবুল বাশারসহ ৬ জন ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন সেলিমসহ ১৬ জনকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রে সুপারিশ পাঠান। 

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সুর্জিত চ্যার্টাজি বাপ্পী, সিরাজ ফরাজী, সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কাজল কৃষ্ণ দে, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক পাভেলুর রহমান শফিক খানসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের অন্যান্য নেতাকর্মী। 

মন্তব্য


অন্যান্য