ঢাকা

পদ্মায় ফেরি থেকে পড়ে বৃদ্ধ নিখোঁজ

প্রকাশ : ০৯ জুন ২০১৯ | আপডেট : ০৯ জুন ২০১৯

পদ্মায় ফেরি থেকে পড়ে বৃদ্ধ নিখোঁজ

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি থেকে পদ্মা নদীতে পড়ে মো. আমজাদ গাজী (৮৫) নামের এক বৃদ্ধ নিখোঁজ রয়েছেন। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আমজাদ গাজীর বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার রামদিয়া কলেজ পাড়া এলাকায়। 

তার নাতি প্রকৌশলী আসলাম উদ্দিন গাজী জানান, দাদাসহ পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঢাকায় বসবাস করেন তারা। ঈদে গ্রামের বাড়িতে গিয়েছিলেন। ঈদ শেষে রোববার গোপালগঞ্জ থেকে সাউদিয়া পরিবহনে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন তারা। সকাল ১০টার দিকে বাসটি শাহ মখদুম ফেরিতে উঠে। এসময় তার মাসহ অন্যরা বাসের মধ্যে বসে থাকলেও দাদা ও বাবাকে নিয়ে তিনি ফেরির উপরে যান। এক পর্যায়ে তার বাবা দাদার জন্য পান আনতে যান। হঠাৎ দাদা তাদের অগোচরে ফেরির রেলিংয়ের কাছে যান ও কিছু বুঝে ওঠার আগেই সেখান থেকে নদীতে পড়ে যান। লোকজনের চিৎকার শুনে কাছে গিয়ে তার দাদার নিচে পড়ে যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারেন।

নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরি দল কাজ করছে। তাদের সঙ্গে রয়েছে ধলেশ্বরী নামের একটি উাদ্ধারকারী জাহাজ। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সদস্য খাদেমুল ইসলাম বলেন, আমরা ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় জেলেদের সহায়তায় নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। 

দৌলতদিয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ওসি লাবু মিয়া বলেন, উদ্ধার তৎপরতায় দৌলতদিয়া ও আরিচা নৌপুলিশ যৌথভাবে সহযোগিতা করছে। আশা করছি, দ্রুত সময়ের মধ্যে নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধান পাওয়া যাবে।

এদিকে আসলাম উদ্দিন গাজী জানান, এ ঘটনাকে ভুলভাবে উপস্থাপন করে ‘পুত্রবধূর সঙ্গে ঝগড়া করে ফেরি থেকে বৃদ্ধের নদীতে ঝাঁপ’ শিরোনামে নিউজ করেছে একটি অনলাইন মিডিয়া। যা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

ওই সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি আমাদের পরিবারের জন্য চরম মানহানিকর। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে দাদা আমাদের সঙ্গে সৌহাদ্যপূর্ণভাবে ঢাকায় বসবাস করেন। পরিবারের সাবাই দাদাকে অত্যন্ত শ্রদ্ধা করেন।

মন্তব্য


অন্যান্য