ক্রিকেট

দশে এসে মিলবে নকআউট ধাঁধা?

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৯ | আপডেট : ১৬ মে ২০১৯

দশে এসে মিলবে নকআউট ধাঁধা?

ছবি: আইসিসি

  অনলাইন ডেস্ক

সাত মাস আগে ভারতের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে হেরেছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের আগে উইন্ডিজের বিপক্ষে আরও একটি ফাইনাল। এখানে হারলে মাশরাফিরা সম্ভবত খুব বেশি মন খারাপ করবেন না। ত্রিদেশীয় সিরিজটা যে বিশ্বকাপের প্রস্তুতির। তাতে অপরাজিত থেকে ফাইনালে ওঠা গেছে। নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণ করা গেছে। তবে নকআউট জুজু কাটানোর চাপ টাইগারদের আছে।

সাকিবরা ২০০৯ সালে শ্রীলংকার কাছে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে হারে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১২ এশিয়া কাপের ফাইনালে সাকিব-মুশফিকদের কান্না বাংলাদেশ ক্রিকেটে স্থায়ীত্ব পেয়েছে। এই দশ বছরে বাংলাদেশ মোট নয়টি নকআউট ম্যাচ খেলেছে। সাতটি ফাইনাল, একটি কোয়ার্টার ফাইনাল এবং একটি সেমিফাইনাল। জয় নেই একটিও। এবার দশে এসে সেই ধাঁধা মেলে কিনা দেখার পালা।

বাংলাদেশ আগের নয় নকআউটের পাঁচটি হেরেছে ভারতের কাছে। ২০১৫ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে হার। ২০১৬ সালে ঘরের মাঠে এশিয়া কাপের (টি-২০) ফাইনালে স্বপ্নভঙ্গ। পরের বছর চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সেমিফাইনালে আবার ভারতে কাটা মাশরাফিরা। এরপর শ্রীলংকার মাটিতে নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল। শেষ ওভারে দিনেশ কার্তিকের কাছে হার সৌম্যদের। গত বছরের সেপ্টেম্বরের এশিয়া কাপ ফাইনালে তাতে নতুন সংযোজন।

বাংলাদেশের খেলা আগের আটটি নকআউট ম্যাচ এশিয়ার দেশের বিপক্ষে। ভারতের বিপক্ষে পাঁচটি, পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি, শ্রীলংকার বিপক্ষে দুটি ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল। অন্যটি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই আয়ারল্যান্ডে। এবারও এখানে এশিয়ার বাইরের প্রতিপক্ষ। বৈশ্বিক আসরের আগে আয়োজিত ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল। এই ফাইনাল জিতে বিশ্বকাপে যাওয়ার আত্মবিশ্বাসই যে হবে অন্য রকম।

মন্তব্য


অন্যান্য