ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

সাকিব পরালেন ‘মরণ বিষের তাজ’

প্রকাশ : ২৫ জুন ২০১৯

সাকিব পরালেন ‘মরণ বিষের তাজ’

ছবি: টুইটার

  সুমন মেহেদী

বিশ্বকাপে একজন লেগ স্পিনারের অভাব নিয়ে টাইগার সমর্থকদের হা-হ্যাপিত্যেশের শেষ ছিল না। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে আর্ম বোলারদের ‘বেল নেই’ শুনে কান ঝালা-ফালা হবার যোগাড়। আইপিএল চলাকালীন সাকিব এ নিয়ে এক সাক্ষাৎকারও দেন। বলেন, রিস্ট স্পিনারদের মতোই ভয়ঙ্কর আর্মাররা। আফগানদের বিপক্ষে সাকিব সেটা প্রমাণ করে দিলেন।

বোলিংয়ে এসে নিজের প্রথম ওভারেই তিনি ফাঁদে ফেলে আউট করেন রহমত শাহকে। পরের উইকেট গুলবাদিন নাঈব। বলে কয়ে আউট করার মতো, সিলি মিড অফে লিটন এবং মেহেদি মিরাজকে পাশাপাশি দাঁড় করান। লিটনের হাতেই ক্যাচ দেন নাঈব। এরপর দারুণ এক কুইকার আর্মার দিয়ে বোল্ড করেন মোহাম্মদ নবীকে। আসগর আফগান রান তোলার চাপে পড়ে ডিপ মিডে ক্যাচ দেন। আর বাইরে বেরিয়ে মারতে আসা নাজিউল্লাহ জাদরানকে ফেরান স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলে।

পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে সাকিব নিজের ক্যারিয়ার সাজালেন নতুন করে। প্রশ্ন তুলে দিলেন, তিনি সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার কি-না। এ নিয়েও নানা মুনির নানা মতো বের হচ্ছে। কারো জিজ্ঞাসা, সাকিব সর্বকালের সেরা না হলে কে? কেউ বলেন, জ্যাক ক্যালিসের পরেই সাকিব। কারো মত, সাকিবকে বিশ্বকাপ জিততে হবে, তবেই না তিনি সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার হবেন। অনেকে মনে করিয়ে দেন কপিল দেব, ইমরান খানের কথা। যারা অলরাউন্ড পারফর্ম করে দেশকে সেরার মুকুট পরিয়েছেন।

সাকিব ট্রফি জেতার প্রশ্নে পিছিয়ে সত্যি। তবে সে পথও এখনও বন্ধ হয়ে যায়নি। বর্তমান বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার দারুণ পারফর্ম দিয়ে তার জবাবও দিচ্ছেন। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান তাই আফগান ম্যাচের আগেই শিরোনাম করে, দুর্দান্ত সাকিবে পরবর্তী ধাপের স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। দ্য টেলিগ্রাফের বিচারে, বিশ্বকাপের অবিসংবাদিত নেতা হন সাকিব। বাঁ-হাতি সাকিব অলরাউন্ডার অবশ্য এসব নিয়ে অত ভাবেন না।

তবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যাটে-বলে দারুণ খেলে সাকিব জানান দিলেন এবারের বিশ্বকাপে আলাদা এক সাকিব হয়ে এসেছেন তিনি। সোমবার রোজ বোলে ব্যাট হাতে তিনি ৫১ রানে আউট হয়ে ভক্তদের হতাশ করেন। দল যে চাপে পড়ে যায়। কিন্তু বল হাতে আফগান স্পিনারদের মরণ বিষের তাজ পরিয়ে একাই নেন পাঁচ উইকেট। যা সাকিবের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। এর আগেও ওয়ানডে ক্রিকেটে পাঁচ উইকেট নেওয়ার কীর্তি আছে তার। তবে সেবার খরচা করেন ৪৭ রান, এবার দিলেন মাত্র ২৯। বাংলাদেশের প্রথম বোলার হিসেবে বিশ্বকাপে পাঁচ উইকেটের ক্লাবে ঢুকলেন তিনি।

সাকিব তার ৬০ বলের মধ্যে ৪০ বলই করেন ডট। বাউন্ডারি খেয়েছেন মোটে একটি। এছাড়া বিশ্বকাপের ইতিহাসে তৃতীয় অলরাউন্ডার হিসেবে একই আসরে পাঁচ উইকেট এবং সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন সাকিব। এর আগে ভারতের কোপিল দেব ১৯৮৩’র বিশ্ব আসরে সেঞ্চুরি এবং পাঁচ উইকেট নেন। যুবরাজ সিং নেন ২০১১’র আসরে। তারা দু’জনই শিরোপা ছুঁয়ে দেখার মর্যাদা অর্জন করেছেন। আশার কথা বটে!

সাকিব আল হাসান চলতি বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৪৭৬ রান করেছেন। দেশি বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ১০ উইকেট নিয়েছেন। উইকেটের তালিকায় আছেন আটে (সাইফউদ্দিন নয়, মুস্তাফিজ দশ)। বিশ্বকাপে প্রথম অলরাউন্ডার হিসেবে এক হাজার রান এবং ৩০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছেন। বিশ্বকাপের আগে নিজেকে ভেঙে নতুন করে গড়েছেন সাকিব। দারুণ পারফর্ম তারই প্রমাণ। কিন্তু তা তাকে উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসাচ্ছে না। ম্যাচ শেষে সাকিব তাই বলেন, আমাদের পেছনে ভক্তদের উৎসাহ আছে। আমরা তাই ভালো করছি।’

মন্তব্য


অন্যান্য