মন্তব্য

'ঘ' ইউনিটের পুনঃপরীক্ষা

শিক্ষার্থীদের প্রতি এটি আংশিক ন্যায়বিচার: আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক

প্রকাশ : ২৪ অক্টোবর ২০১৮ | আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০১৮

শিক্ষার্থীদের প্রতি এটি আংশিক ন্যায়বিচার: আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক

  অনলাইন ডেস্ক

শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আবারও নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্বদ্যিালয় কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত ডিন’স কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। তবে এ পরীক্ষায় শুধু উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্তে বিভিন্ন মহলে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। অনেকেই বলছেন, ফাঁস হওয়া প্রশ্ন ও উত্তরপত্রে উত্তীর্ণরাই আবার পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে; বঞ্চিত হচ্ছে অন্য শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এ সিদ্ধান্ত নিয়ে সমকাল অনলাইনকে নিজের মতামত জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা সঠিক হয়েছে। তবে শুধু উত্তীর্ণদের আবার পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্তটি ঠিক হয়নি। কারণ, হয়তো ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র যারা পেয়েছে তারাই উত্তীর্ণ হয়ে আবার পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে। এটি পরীক্ষার্থীদের প্রতি ন্যায়বিচার হচ্ছে না। অনুত্তীর্ণ অনেকেই হয়তো হতাশা থেকে পরীক্ষায় খারাপ করেছে। শুধু উত্তীর্ণ ১৮ হাজার শিক্ষার্থী আবার পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবে আর বাকী ৫৭ হাজার পাবে না-এটা ন্যায়বিচার হচ্ছে না। আমার মতে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিৎ ‘ঘ’ ইউনিটের সব পরীক্ষার্থীর আবার পরীক্ষা নেওয়া। তা না হলে, এটা শিক্ষার্থীদের প্রতি আংশিক ন্যায়বিচার হবে।

২০১১ সালে ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্রে ভুল থাকার কারণে আবারও পরীক্ষার দাবি উঠেছিল। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তখন পুনরায় সব পরীক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেয়। শিক্ষার্থীদের কাছে তখন নতুন কোন ফি নেওয়া হয়নি। তাহলে এবার কেন সব পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া যাবে না? পরীক্ষার ব্যয়ভার কিংবা অন্য যেকোন কিছুর চেয়ে এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ও বিশ্বাসযোগ্যতার প্রশ্ন বড়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ভুল সংশোধন করলেও এখানে যারা নিরাপরাধ তারা হয়তো পরীক্ষায় বসার সুযোগ না পেয়ে বঞ্চিত হচ্ছে। এ কারণে সবাইকে আবার পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ দেওয়া উচিৎ।


আরও পডুন

মন্তব্য


অন্যান্য