চট্টগ্রাম

শিশুকে কেউ এভাবে পেটায়!

প্রকাশ : ১৮ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ১৮ জুলাই ২০১৯

শিশুকে কেউ এভাবে পেটায়!

খবর পেয়ে নির্যাতিত শুভকে উদ্ধার করে পুলিশ -সমকাল

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

বৈদ্যুতিক জেনারেটর রুম থেকে মাত্র এক ফুট দৈর্ঘ্যরে একটি অ্যালুমিনিয়ার তার চুরির অভিযোগে শুভ (১২) নামে এক শিশুকে বেধরক পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতনের শিকার ওই শিশুকে পুলিশ উদ্ধার করলেও অভিযুক্ত জেনারেটর অপারেটর ফারুক পালিয়ে গেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার সরকারহাট বাজারে এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুভ একজন টোকাই। দুপুর ২টার দিকে সরকারহাট বাজারের বৈদ্যুতিক জেনারেটর রুমের পাশ থেকে একফুট দৈর্ঘ্যের একটি অ্যালুমিনিয়ামের তার কুড়িয়ে নেয় সে। এ সময় জেনারেটরের মালিক ফারুক এসে শুভকে আটক করে। শুভর হাতে থাকা ওই তার দিয়েই তাকে বেধড়ক পিটুনি দেয়। পরে চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে শুভকে উদ্ধার করে একটি ফার্মেসিতে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। সংবাদ পেয়ে হাটহাজারী থানার এএসআই এনায়েত শুভকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ফারুক পালিয়ে যান। 

অভিযুক্ত ফারুক মির্জাপুর ইউনিয়নের চারিয়া গ্রামের বাসিন্দা। নির্যাতনের শিকার শুভ ভোলা জেলার মো. সাহাবুদ্দিনের ছেলে। চট্টগ্রাম নগরীর আতুরার ডিপো এলাকায় মনিরের কলোনিতে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করে সে।

সরকারহাট বাজার কমিটির সভাপতি মহিউদ্দিন সমকালকে বলেন, টোকাই ছেলেদের বিরুদ্ধে বাজারের বিভিন্ন দোকান থেকে মোবাইল ও গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র চুরির অভিযোগ রয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে শুভকে অ্যালুমিনিয়ামের তার নিতে দেখে ফারুক ক্ষুব্দ হয়ে পিটুনি দিয়েছেন। এটি চরম অমানবিক কাজ হয়েছে। এ ঘটনার জন্য ফারুক জনসম্মুখে সবার কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন ও শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে নগদ ৭শ’ টাকা দিয়েছেন।

এএসআই এনায়েত বলেন, সামান্য তার চুরির অভিযোগ এনে ফারুক শিশুটিকে বেধড়ক পিটিয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। আমরা শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।

হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, অভিযুক্ত ফারুক পলাতক। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য


অন্যান্য