চট্টগ্রাম

মিয়ানমার থেকে ইয়াবা আসা বন্ধ হয়নি: বিজিবি

প্রকাশ : ১০ জুন ২০১৯ | আপডেট : ১০ জুন ২০১৯

মিয়ানমার থেকে ইয়াবা আসা বন্ধ হয়নি: বিজিবি

বিজিবির সংবাদ সম্মেলন -সমকাল

  টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে' অজ্ঞাত একজন নিহত হয়েছেন। তিনি মাদক পাচারকারী বলে দাবি করেছে বিজিবি।

সোমবার ভোরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিক ভাবে নিহতের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে বিজিবির ধারণা, নিহত ব্যক্তি রোহিঙ্গা।

এ বিষয়ে জানাতে দুপুর ১২ টার দিকে টেকনাফস্থ ২ বিজিবি ব্যাটলিয়ান সদর দপ্তরে অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান (পিএসসি) সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেজর রুবাইয়াৎ কবীর।

লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান বলেন, সোমবার ভোর রাতে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে আসার গোপন সংবাদ পেয়ে দমদমিয়া বিওপির নায়েক মো. হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে একটি টহলদল জাদিমুড়া নাফনদী সীমান্ত এলাকায় অবস্থান নেয়। এ সময় একটি নৌকা জাদিমুড়া মন্দির হতে নাফনদী দিয়ে দেশে প্রবেশ করার সময় ইয়াবা পাচারকারীরা বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে গুলিবর্ষণ করে। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে ইয়াবা পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে অজ্ঞাত এক মাদক পাচারকারীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক, দুই রাউন্ড গুলি খোসা ও একটি কাঠের নৌকা জব্দ করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিজিবির এই কর্মকর্তা বলেন, চলতি মাসের ১০ দিনে সীমান্তে ১৬ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এতে প্রমাণ হয় মিয়ানমার থেকে এখনও ইয়াবা আসা বন্ধ হয়নি। যারা মিয়ানমার থেকে ইয়াবা আসা বন্ধ হয়েছে বলে প্রচারণা করছেন, সেটি একদম মিথ্যা। কিভাবে ইয়াবা বন্ধ করা যায় বিজিবি সেটির সমাধান খুঁজছে। এছাড়া জীবন বাজি রেখে সীমান্তে বিজিবি ইয়াবা বিরোধী অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

মন্তব্য


অন্যান্য