রাজধানী

ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যারিয়ার এক্সপো

প্রকাশ : ২৩ জুন ২০১৯

ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যারিয়ার এক্সপো

  অনলাইন ডেস্ক

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি (এমসিটি) বিভাগের আয়োজনে দিনব্যাপী ‘এমসিটি ক্যারিয়ার এক্সপো-২০১৯’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭১ মিলনায়তনে ক্যারিয়ার এক্সপোর উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেণ্য চিত্রশিল্পী ও বাংলাদেশ টেলিভিশন ও শিল্পকলা একাডেমীর সাবেক মহাপরিচালক মুস্তাফা মনোয়ার। 

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস এম মাহবুব উল হক মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল হক, মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি (এমসিটি) বিভাগের প্রধান ড. শেখ মুহাম্মদ আলায়ের, ক্যারিয়ার ডেভলপমেন্ট সেন্টারের পরিচালক আবু তাহের খান প্রমুখ।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এ ক্যারিয়ার এক্সপোতে দেশের শীর্ষস্থানীয় দশটি মাল্টিমিডিয়া প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে। উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ শিক্ষার্থীদের প্রদর্শিত স্টল পরিদর্শন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ বলেন, সারা পৃথিবী এখন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে প্রবেশ করেছে। চুতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করার জন্য অ্যানিমেশন, থ্রি ডি, মোশন গ্রাফিক্স ইত্যদিতে দক্ষতা অর্জন করা খুবই দরকার। কিন্তু আমাদের দেশে এসবের চর্চা এখনও ব্যপকভাবে শুরু হয়নি। তবে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় ব্যতিক্রম উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয় এমসিটি বিভাগ চালু করে যুগের চাহিদা পূরণ করেছে। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মুস্তাফা মনোয়ার বলেন, প্রযুক্তির উন্নতি দেখে ভয় পাওয়ার কিছু নেই, নিজের সৃজনশীলতা ব্যবহার করতে জানলে কোনো প্রতিবন্ধকতাই বাধা হতে পারবে না। সৃজনশীল মানুষের কাজের কোনো অভাব হয় না। এসময় তিনি ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়কে ধন্যবাদ জানান মাল্টিমিডিয়ার মতো সৃজনশীল বিষয়ে পাঠদান করার জন্য।

মন্তব্য


অন্যান্য