বলিউড

অমিতাভ-শাহরুখের চেয়ে দামি বিরাট-দীপিকা

প্রকাশ : ১২ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০১৯

অমিতাভ-শাহরুখের চেয়ে দামি বিরাট-দীপিকা

অমিতাভ বচ্চনকে হারালেন দীপিকা, শাহরুখ খানকে হারালেন বিরাট কোহলি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রচারই প্রসার। এ সূত্রকে সামনে রেখেই বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পণ্যের প্রচারের নানামুখী বিজ্ঞাপন কৌশল প্রয়োগ করে থাকেন। এই বিজ্ঞাপনী কৌশলের প্রধান চালিকা শক্তি হচ্ছে তারকা সেলিব্রেটিরা। মূলত একটি দেশের সেলেব্রিটিদের ওপর ভরসা করেই বিজ্ঞাপন তৈরি করে সংস্থাগুলো। এ ক্ষেত্রে যার জনপ্রিয়তা যত বেশি বিজ্ঞাপনী সংস্থার কাছে সে তত দামি। 

বিজ্ঞাপনে একজন তারকা থাকলে ভোক্তাকে কতটা আগ্রহ জাগাতে পারবে সেটাই ভাবা হয় আগে। মূলত ব্র্যান্ড ভ্যালু যার বেশি সেই সেলিব্রেটির বিজ্ঞাপনী জগতে দামও বেশি। ভারতে সেলেব্রিটিদের মধ্যে কার ব্র্যান্ড ভ্যালু এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি জানেন? 

তিনি ক্রিকেটার বিরাট কোহালি। তার ঝুলিতে রয়েছে প্রথম স্থান। ডাফ অ্যান্ড ফেল্পসের এই সমীক্ষায় ‘দ্য বোল্ড, দ্য বিউটিফুল অ্যান্ড দ্য ব্রিলিয়ান্ট’ এই তিনটি বৈশিষ্টের ভিত্তিতে যে রিপোর্ট এসেছে তাতে বলিউড তারকাদের পেছনে ফেলেছেন বিরাট। এই মুহূর্তে বিরাটের ব্র্যান্ড ভ্যালু প্রায় ১৭০.৯ মিলিয়ন ডলার, যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১ হাজার ২০৫ কোটি রুপি।

সমীক্ষা অনুযায়ী, ই-কমার্স, রিটেল, এফএমসিজি ও স্মার্টফোনের বাজারে সবচেয়ে বেশি ব্যবসা দিয়েছেন এই সেলেব্রিটিরা। তরুণ প্রজন্মের মধ্যেও সবচেয়ে জনপ্রিয় এরাই। এতে শাহরুখ বা সালমান খান নন— দ্বিতীয় স্থানটি দখল করেছেন বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। ‘পদ্মাবত’ নায়িকার ব্র্যান্ড ভ্যালু প্রায় ১০২.৫ মিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৭২৩ কোটি রুপি।

ইএসপি প্রপার্টি অর্থাৎ খেলা ও বিনোদনের জগতের ‘কমার্শিয়াল ও ক্রিয়েটিভ অ্যাডভাইসর’ এর স্বত্ব যাদের কাছে থাকে, তাদের থেকে নেওয়া তথ্য নিয়ে ডাফ অ্যান্ড ফেল্পসের এই সমীক্ষায় তৃতীয় স্থানেও খানদের প্রাধান্য নেই। ‘প্যাডম্যান’ নায়ক অক্ষয় কুমার রয়েছেন তৃতীয় স্থানে। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু ৬৭.৩ মিলিয়ন ডলার, যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৪৪৭ কোটি রুপি।

চার নম্বরে রয়েছেন রণবীর সিংহ। ‘সিম্বা’ অভিনেতার ব্র্যান্ড ভ্যালু প্রায় ৪৪৫ কোটি রুপি। অর্থাৎ নবদম্পতি দীপিকা ও রণবীরের ব্র্যান্ড ভ্যালু মিলিয়েও বিরাট কোহালিকে ছাপিয়ে যেতে পারেনি।

সেলেব্রিটিদের নিয়ে মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজির ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনের সংখ্যা ২০০৭ সালে ছিল ৬৫০, ২০১৭ সালে তা ১৬৬০, এই দশ বছরে যৌগিক বার্ষিক বৃদ্ধির হার (সিএজিআর) প্রায় ১০ শতাংশ। ২০১৭ সালে এই সমীক্ষায় দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন শাহরুখ খান, এবার তিনি রয়েছেন পাঁচ নম্বরে। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু প্রায় ৬০.৭ মিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৪২৮ কোটি রুপি।

সমীক্ষা বলছে, ২০০৭ থেকে দশ বছরে ১ লাখ ৯ হাজার ১৯০ কোটি রুপি থেকে ৪৬ লাখ ৯ হাজার ৪৩৩ কোটি রুপিতে এসে পৌঁছেছে টেলিভিশেনর বিজ্ঞাপনের মোট খরচ।  সেই ভিত্তিতে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন সালমন খান। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু এই মুহূর্তে ৫৫.৮ মিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৩৯৪ কোটি রুপি।

সপ্তম স্থানে রয়েছেন অমিতাভ বচ্চন। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু এই মুহূর্তে ৪১.২ মিলিয়ন ডলার বা ২৯০ কোটি রুপি। অষ্টম স্থানে রয়েছেন আলিয়া ভাট। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু এই মুহূর্তে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২৫৮ কোটি রুপি।

নবম স্থানে রয়েছেন বরুন ধাওয়ান। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু এই মুহূর্তে ৩১.৬ মিলিয়ন ডলার বা ২২৩ কোটি রুপি। দশম স্থানে রয়েছেন হৃতিক রোশন । তার ব্র্যান্ড ভ্যালু এই মুহূর্তে ৩১ মিলিয়ন ডলার বা ২১৯ কোটি রুপি।

এই তালিকায় ১১ নম্বর স্থানে রয়েছেন আমির খান। আমিরের ব্র্যান্ড ভ্যালু প্রায় ২৮.৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ২০১ কোটি রুপি। তালিকার ১২ ও ১৩ নম্বরে রয়েছেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি ও আনুশকা শর্মা। তাদের ব্র্যান্ড ভ্যালু প্রায় ১৯০ কোটি ও ১৬৬ কোটি রুপি।

এই তালিকার ১৪ নম্বরে রয়েছেন শচিন টেন্ডুলকার। তার পরই রয়েছেন পিভি সিন্ধু। শচিন ও সিন্ধুর ব্র্যান্ড ভ্যালু যথাক্রমে ১৫৪ কোটি ও ১৪৯ কোটি রুপি। গত বছরে কোহালি, শচিন, ধোনি ও সিন্ধু মিলে প্রায় ১ হাজার ৭০০ কোটি রুপির ব্যবসা দিয়েছেন দেশটির প্রচলিত ব্র্যান্ডগুলোকে।

মন্তব্য


অন্যান্য