বাংলাদেশ

ত্যাগের মহিমায় উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা

প্রকাশ : ১২ আগষ্ট ২০১৯ | আপডেট : ১২ আগষ্ট ২০১৯

ত্যাগের মহিমায় উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা

   সমকাল প্রতিবেদক

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও ত্যাগের মহিমায় উৎসবমুখর পরিবেশে সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হচ্ছে। আল্লাহর অনুগ্রহ লাভের আশায় পশু কোরবানির মধ্য দিয়ে মুসলমানরা সোমবার এই ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করছেন। সকালে দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায়ের পর শুরু হয় পশু কোরবানি।

সোমবার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদুল আজহার প্রথম জামাত হয় সকাল ৭টায়। বেলা ১১টা পর্যন্ত এই মসজিদে মোট পাঁচ দফায় ঈদের নামাজ হয়। রাজধানীর হাইকোর্ট-সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের প্রধান জামাত হয় সকাল ৮টায়। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনসহ বিভিন্ন দলের নেতৃবৃন্দ, সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন মুসলিম দেশের কূটনীতিকদের অনেকে এবং সর্বস্তরের জনগণ জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে দেশের অব্যাহত শান্তি ও উন্নয়ন, জনগণের কল্যাণ এবং মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তর ঐক্য কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের জ্যেষ্ঠ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। মোনাজাতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে যারা মারা গেছেন তাদের সবাইকে শাহাদাতের মর্যাদা দিয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করার জন্য মহান আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ জানানো হয়। একইসঙ্গে সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর রোগমুক্তি কামনা ও ডেঙ্গুর প্রকোপ কমানোর জন্যও দোয়া করা হয়।

দেশের বৃহত্তম ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় কিশোরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সেখানে এবারও ছিল কঠোর নিরাপত্তা।

ঈদের দিন সকালে বঙ্গভবনে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। অন্যদিকে গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে সব সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের ভবনগুলোয় জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কলেমা ও ঈদ মোবারকখচিত পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে।

মন্তব্য


অন্যান্য