বাংলাদেশ

নববর্ষে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০১৯ | আপডেট : ১৪ এপ্রিল ২০১৯

নববর্ষে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

নতুন বছরের প্রথম দিনে চার তরুণ চিকিৎসকের নেতৃত্বে কুড়িগ্রামের উলিপুরে সুবিধা-বঞ্চিত প্রায় এক হাজার রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। সংগৃহীত ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

নব স্বপ্নের পসরা সাজিয়ে এসেছে নতুন বছর। ঐতিহ্যবাহী নানা অনুষ্ঠানে রোববার দেশব্যাপী উদযাপিত হয়েছে বাংলা বছরের প্রথম দিন পহেলা বৈশাখ। দেশের সর্ববৃহৎ এ সাংস্কৃতিক উৎসবের দিনে তরুণ-তরুণীসহ সব বয়সের মানুষ লাল-সাদা পোশাক পরে রাস্তায় নেমে আসেন। তবে একদল তরুণ চিকিৎসক দিনটিকে বেছে নেন মানব সেবামূলক কাজে ব্যয় করার জন্য।

ডা. নাজমুল ইসলাম, ডা. নাঈমা ফেরদৌসী, ডা. ফেরদৌস তিশা ও ডা. আনিকা নাওয়ার- তরুণ এই চার চিকিৎসকের নেতৃত্বে বছরের প্রথম দিনে কুড়িগ্রামের উলিপুরে প্রান্তিক ও সুবিধা-বঞ্চিত প্রায় এক হাজার রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। এছাড়া প্রয়োজনীয় ওষুধ প্রদান করা হয়। 

উলিপুরের গোড়াই রঘুরায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে রোববার সকাল থেকেই ছিল রোগীদের ভিড়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় বাড়তে থাকে। রোগীদের মধ্যে নারী ও শিশুর সংখ্যাই ছিল বেশি।

পঞ্চাশোর্ধ নারী আমেনা বেগম তার নাতনীকে সঙ্গে নিয়ে এসেছেন চিকিৎসা নিতে। তিনি জানালেন, দীর্ঘ দিন ধরে শ্বাস কষ্টসহ নানা ধরনের অসুখে ভুগছেন। গ্রাম্য চিকিৎসকের ওষুধ খেয়ে কোনো ফল পাচ্ছিলেন না। টাকার অভাবে এতোদিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেখাতে পারেননি। এখানে চিকিৎসকদের সেবা পেয়ে তিনি স্বস্তিবোধ করছেন।

আমেনা বেগমের মতো এক হাজারও বেশি রোগী এসেছিলেন চিকিৎসা নিতে। কেউ এসেছিলেন হাতের সমস্যা নিয়ে, কেউ মাথার কেউবা পায়ের সমস্যা নিয়ে। তাদের সকলকে প্রাথমিক চিকিৎসাপত্র এবং প্রয়োজনীয ওষুধ দেওয়া হয়।

দিনব্যাপী এই ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে নানা বয়সী প্রায় এক হাজার মানুষ চিকিৎসা নেন। সংগৃহীত ছবি

ডু সামথিং ফাউন্ডেশনের আয়োজনে দিনব্যাপী এই ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে প্রধান অতিথি ছিলেন উলিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন মন্টু। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন- উলিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খাইরুল ইসলাম বাবলু, শিক্ষক, সম্পাদক ও গবেষক আবু হেনা মুস্তফা এবং রেডিও চিলমারীর স্টেশন ইনচার্জ রশির আহমেদ। আয়োজনের তত্ত্বাবধানে ছিলেন স্থানীয় শিক্ষক মাহাবুবার রহমান। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল উলিপুর ডট কম ও রেডিও চিলমারী।

তরুণদের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে উলিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন মন্টু বলেন, ‘নতুন বছর বরণে এর চেয়ে ভালো উদ্যোগ আর কিছু হতে পারে না। এই তরুণরাই ইতিবাচক ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে।’  

ডু সামথিং ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ এখনো প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত। আমরা চেষ্টা করছি দেশের সব অঞ্চলে গিয়ে অন্তত প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দেওয়ার। আমাদের এ উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।’   

উল্লেখ্য, ডু সামথিং ফাউন্ডেশন শুধু উত্তরবঙ্গেই নয় সারাদেশেই গরীব রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা দিয়ে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার আয়োজন ছিল কুড়িগ্রামের উলিপুরে। এটি তাদের আয়োজনের ৩২তম ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প।

মন্তব্য


অন্যান্য