বাংলাদেশ

কোকা-কোলার বিজ্ঞাপনে 'বিকৃত বাংলা শব্দের' ব্যবহার প্রশ্নে রুল

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৯

কোকা-কোলার বিজ্ঞাপনে 'বিকৃত বাংলা শব্দের' ব্যবহার প্রশ্নে রুল

  সমকাল প্রতিবেদক

কোমল পানীয় কোকা-কোলার বোতলের লেবেলে 'বিকৃত বাংলা শব্দ' ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রচার করায় কোকা-কোলার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এই রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে তথ্য সচিব, শিল্প সচিব, সংস্কৃতিস সচিব, আইন সচিব, শিক্ষা সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক, পুলিশের মহাপরিদর্শক ও ইন্টারন্যাশনাল বেভারেজেস প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ১০ বিবাদীকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি কোমল পানীয় কোকা-কোলার বোতলের লেবেলে 'জটিল', 'চরম', 'মাথা নষ্ট', 'বাবু', 'ঢিলা', 'ফাঁপর', 'জান', 'গুটি', 'গাব', 'আগুন', 'কড়া', 'অস্থির', 'পার্ট', 'প্যারা', 'ব্যাপক', 'যা-তা'— এমন শব্দ ব্যবহারের বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে হাইকোর্টে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মনিরুজ্জামান। বৃহস্পতিবার ওই রিটর শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আবেদনকারী আইনজীবী মনিরুজ্জামান রানা নিজেই। কোকা-কোলার পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী এরশাদুল আলম। রাষ্ট্রক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল এম সাইফুল আলম।

আইনজীবী মনিরুজ্জামান আদালতে বলেন, কোকা-কোলার বোতলের লেবেলে যেসব শব্দ ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রচার করছে তা আপত্তিজনক। কেননা একটি শিশু দোকানে গিয়ে বলছে 'আমাকে একটা প্যারা দেন', কেউ বলছে 'একটা মাথা নষ্ট দেন'। এতে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে।

আরও পডুন

মন্তব্য


অন্যান্য