বাংলাদেশ

চবিতে ছাত্রদল নেতাকে মারধরের অভিযোগ

প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

চবিতে ছাত্রদল নেতাকে মারধরের অভিযোগ

  চবি প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) খালেদা জিয়া হলের নামফলক তুলে ফেলার বিচার চেয়ে স্মারকলিপি দেওয়ায় এক ছাত্রদল নেতাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে ক্যাম্পাসের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ঝুপড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার তালিমুল ইসলাম সায়েম চবি ছাত্রদলের যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক।

তালিমুল ইসলাম সায়েম বলেন, 'দুপুরে পরীক্ষা দিয়ে বের হয়ে ঝুপড়িতে আসি। হঠাৎ ছাত্রলীগের ২০-৩০ নেতাকর্মী আমার ওপর হামলা চালায়। পরে জোরপূর্বক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা আমাকে ছাত্রদলের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিতে বাধ্য করে।'

চবি ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সমকালকে বলেন, বিনা উস্কানিতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমাদের এক নেতাকে মারধর করেন। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে চবি ছাত্রলীগের সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান বিপুল সমকালকে বলেন, স্মারকলিপি দেওয়ার জন্য তাকে মারধরের এ অভিযোগ সঠিক নয়। 

নির্বাচনকে সামনে রেখে সে বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। তার মোবাইলে এর প্রমাণ রয়েছে। ছাত্রলীগ এ অপচেষ্টা প্রতিহত করে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে।

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর বলেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার চবির খালেদা জিয়া হলের নামফলক তুলে ফেলে ছাত্রলীগের অর্ধশত নেতাকর্মী। 

এ সময় তারা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে থাকা খালেদা জিয়ার নামফলক কালো কালি দিয়ে মুছে দেয়।

মন্তব্য


অন্যান্য