অন্যান্য

নবম ওয়েজবোর্ড: আপিল বিভাগের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার চায় নোয়াব

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নবম ওয়েজবোর্ড: আপিল বিভাগের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার চায় নোয়াব

  সমকাল প্রতিবেদক

সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নতুন বেতন-কাঠামো নির্ধারণে গঠিত নবম ওয়েজ বোর্ডের সুপারিশ বাস্তবায়নে গেজেট প্রকাশকে কেন্দ্র করে আপিল বিভাগের দেওয়া স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেছে সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজ পেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব)।

নোয়াবের করা আবেদনটি আগামী ২০ অক্টোবর আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠানো হয়েছে। অবকাশকালীন চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী সোমবার এই দিন ধার্য করেন। আদালতে নোয়াবের পক্ষে ছিলেন- সুপ্রিমকোর্ট বারের সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন ও আইনজীবী মো. ইউসুফ আলী।

গত ২০ আগস্ট হাইকোর্টের দেওয়া স্থিতাবস্থার আদেশ আট সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ এই আদেশ দেন। এই সময়ের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষকে নিয়মিত লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) করতে বলা হয়।

নোয়াবের করা রিটের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৬ আগস্ট গেজেট প্রকাশের ওপর দুই মাসের স্থিতাবস্থা দেন হাইকোর্ট। নোয়াব সভাপতি ও প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান এ বিষয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন।

গত বছরের ৪ নভেম্বর সাংবাদিকদের জন্য নবম ওয়েজ বোর্ডের রোয়েদাদের সুপারিশ তথ্যমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন নবম ওয়েজ বোর্ডের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. নিজামুল হক। এ সুপারিশ মন্ত্রিসভায় উত্থাপিত হয়। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে আহ্বায়ক করে চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি মন্ত্রিসভায় নবম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদ বাস্তবায়ন সম্পর্কিত মন্ত্রিসভা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। গত ২৫ জুলাই ওই কমিটির এক বৈঠকের পর ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, নবম ওয়েজবোর্ডের সুপারিশ চূড়ান্ত করা হয়েছে। ওই সুপারিশ এখন মন্ত্রিসভায় পাঠানো হবে। মন্ত্রিসভার অনুমোদনের পরই তা গেজেট জারি করা হবে।


মন্তব্য


অন্যান্য