অন্যান্য

ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে মফস্বলে

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে মফস্বলে

  সমকাল প্রতিবেদক

ডেঙ্গুর কেন্দ্র রাজধানী ঢাকা হলেও ক্রমান্বয়ে রোগটি মফস্বলে ছড়িয়ে পড়ছে। ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী এবং মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে। 

বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৭৫০ জন। এর মধ্যে ৫১৩ জনই ঢাকার বাইরের। সেপ্টেম্বরের শুরু থেকেই ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু রোগী বাড়তে শুরু করে।

এদিকে, ডেঙ্গু রোগে বান্দরবানে উপজেলা চেয়ারম্যানের স্ত্রী, সাভার ও বরিশালে দুই স্কুলশিক্ষার্থী এবং ঢাকা মেডিকেলে এক বৃদ্ধা মারা গেছেন। এ নিয়ে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা ২০৯ জন। তবে ১০১টি মৃত্যুর তথ্য পর্যালোচনা করে ৬০ জনের মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুম।

কন্ট্রোল রুম জানিয়েছে, চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৯ হাজার ৩৬৭ জনে। তাদের মধ্যে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তিন হাজার ২৯ জন দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বাকিরা চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল ছেড়েছেন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ১৯৭টি মৃত্যুর তথ্য পাঠানো হয় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে। সংস্থাটি ইতিমধ্যে ১০১টি ঘটনার পর্যালোচনা করে ৬০টিকে ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান পান্না বেগম (৬০)। তিনি গত সোমবার জ্বর নিয়ে হাসপাতালে আসেন। রক্ত পরীক্ষায় তার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। তার বাড়ি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীর বেইজগাঁও গ্রামে।

বরিশাল ব্যুরো জানায়, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে পশ্চিম হারিটানা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার (১৪) মারা গেছেন। বুধবার রাতে তাকে বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শরীরে হিমোগ্লোবিন আশঙ্কাজনকভাবে কমে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় মারা যায়। সুরাইয়া বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার পদ্মা গ্রামের বাদল মুন্সীর মেয়ে। এ নিয়ে বরিশালে আটজন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হলো।

সাভার থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, বুধবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রাণ হারান আইনের ছাত্র মঞ্জুর মোর্শেদ আবির (২৫)। তিনি একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স শেষ করে আইন বিষয়ে পড়ছিলেন। উচ্চতর ডিগ্রি অর্জনের লক্ষ্যে লন্ডনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। দুই সপ্তাহ আগে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার রাতে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে তিনি মারা যান। আবির সাভারের বনগাঁও এলাকার বিএনপি নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুনের বড় ছেলে।

বান্দরবান প্রতিনিধি জানান, ডেঙ্গুতে প্রাণ হারিয়েছেন রুমা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উহদ্মাচিং মার্মার স্ত্রী ডমেচিং মার্মা বেবি। বৃহস্পতিবার ভোরে চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি মারা যান।

মন্তব্য


অন্যান্য