এশিয়া

গোরক্ষকদের হামলা বন্ধে কংগ্রেসের বিল পেশ

প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ২০ জুলাই ২০১৯

গোরক্ষকদের হামলা বন্ধে কংগ্রেসের বিল পেশ

প্রতীকী ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

ভারতের মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকার গোরক্ষকদের হামলা বন্ধ করতে বিধানসভায় একটি বিল পেশ করেছে। বিলটিতে গোরক্ষার নামে কোনোরকম তাণ্ডবে জড়িত থাকলে ছয় মাস থেকে তিন বছর পর্যন্ত জেল এবং ২৫ থেকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করার প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়।

২০০৪ সালে মধ্যপ্রদেশের তৎকালীন বিজেপি সরকার গোহত্যা রুখতে একটি আইন পাস করেছিল। কংগ্রেস পরিচালিত কমল নাথের রাজ্য সরকার ওই আইনের একটি সংশোধনী গ্রহণ করেছে। খবর এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়, রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব মনোজ শ্রীবাস্তব জানান, প্রয়োজনে শাস্তির পরিমাণ বেড়ে পাঁচ বছর পর্যন্ত হতে পারে। বিশেষত, দলবদ্ধভাবে হামলা চালানো এবং একাধিকবার একই অপরাধের ক্ষেত্রে জেলে থাকার মেয়াদ দ্বিগুণ হবে। মারধর, হেনস্তার পাশাপাশি গোরক্ষার নামে সরকারি সম্পত্তি ভাংচুর করলেও তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হবে। গত ২২ মে সেওনি জেলার দুন্দাসেওনি পুলিশ স্টেশনের কাছিওয়াড়া গ্রামে একদল লোক গোরক্ষার নামে এক নারীসহ তিনজন মুসলমানকে বেধড়ক মারধর করে। এর পরই এ-সংক্রান্ত কঠোর আইন করতে উদ্যোগী হয় সরকার। এর আগে গরু নিয়ে যাওয়ার সময় যাতে কৃষক ও ব্যবসায়ীদের কোনো সমস্যায় পড়তে না হয়, তার জন্য আইন করার কথা ভেবেছিল রাজ্য সরকার। এতে সমর্থন জানিয়েছিল রাজ্যের কৃষক ও সংখ্যালঘু সংগঠনগুলোর বড় অংশ।

এদিকে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য বিহারে গরুচোর সন্দেহে তিনজনকে পিটিয়ে হত্যার খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোরের দিকে সরনের বানিয়াপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে বলে জানিয়েছে। কয়েক সপ্তাহ ধরে গবাদিপশু চুরির উৎপাতে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী ভোর সাড়ে ৪টার দিকে একটি গাড়ি ও তিনজন অপরিচিতকে দেখতে পেয়ে চোর সন্দেহে তাদের নির্দয়ভাবে পেটায় বলে পুলিশ ধারণা করছে।

মন্তব্য


অন্যান্য