এশিয়া

মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে ব্যঙ্গ করায় ট্রোলড আইএএস অফিসার

প্রকাশ : ০২ জুন ২০১৯ | আপডেট : ০২ জুন ২০১৯

মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে ব্যঙ্গ করায় ট্রোলড আইএএস অফিসার

নিধি চৌধুরী

  অনলাইন ডেস্ক

মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন উদযাপন কেন করা হয়- টুইটারে এমন প্রশ্ন তুলে বিপাকে পড়েছেন মহারাষ্ট্রের এক আইএএস অফিসার। তাকে চাকরি থেকে বরখাস্তের দাবি করেছে ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি (এনসিপি)। 

ওই কর্মকর্তার দাবি, টুইটটি তিনি ব্যঙ্গাত্মক সুরে লিখেছিলেন। কিন্তু সেটিকে আক্ষরিক অর্থে ধরার ফলেই ভুল বোঝা হচ্ছে। 

নিধি চৌধুরী নামের ওই কর্মকর্তা টুইটারে গত ১৭ মে হ্যাশট্যাগ গডসে দিয়ে পোস্টটিতে মহাত্মা গান্ধীর জন্মের সার্ধশতবর্ষ উদযাপন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। 

তিনি দাবি করেছিলেন, গান্ধীর মূর্তিগুলি সরিয়ে ফেলা হোক এবং তার ছবিগুলিও দেওয়াল থেকে নামিয়ে রাখা হোক। সরিয়ে ফেলা হোক নোট থেকেও। 

ওই কর্মকর্তার জরিমানার দাবি জানিয়েছে শরদ পাওয়ারের ন্যাশনালিস্ট পার্টি।

এই বিতর্কের পরে ওই কর্মকর্তা পোস্টটি মুছে দেন। তিনি জানিয়েছেন, তিনি মহাত্মা গান্ধীকে প্রচণ্ড শ্রদ্ধা করেন।  

তিনি বলেন, আমি কখনওই মহাত্মা গান্ধীকে অপমান করিনি। ওরা এটা বুঝলেন না যে আমি টুইটটা লিখেছি ব্যঙ্গাত্মক ভঙ্গিতে।

তিনি আরও বলেন, আমি এই জন্য গডসেকে ধন্যবাদ দিয়েছি যে মহাত্মা গান্ধীকে এই সময়টা দেখতে হয়নি... লোকজন মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে সমালোচনামূলক ও ভুল কথা লিখে চলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে লেখা নেগেটিভ পোস্ট এবছরের জানুয়ারি থেকেই বেশি দেখা যাচ্ছে। আর তাই আমি এই টুইটটা লিখেছি।

গডসেকে নিয়ে বিতর্ক শুরু হয় যখন মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুরকে বিজেপি ভোপালে কংগ্রেসের দিগ্বিজয় সিংহের বিপরীতে দাঁড় করায়। প্রার্থীর সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যোগকে কেন্দ্র করে দিগ্বিজয় ‘হিন্দু সন্ত্রাসবাদ' শব্দটি ব্যবহার করলে বিজেপি সেটির নিন্দা করে।

কংগ্রেস তখন পাল্টা বলতে শুরু করে, এটা পরিষ্কার, কেন বিজেপি ‘গডসের উত্তরাধিকারী'। 


মন্তব্য


অন্যান্য