কৃষি

১০ থেকে ১৫ লাখ টন চাল রফতানি করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

প্রকাশ : ৩০ মে ২০১৯ | আপডেট : ৩০ মে ২০১৯

১০ থেকে ১৫ লাখ টন চাল রফতানি করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক— পিআইডি

  সমকাল প্রতিবেদক

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ধান ও চালের বাজার স্বাভাবিক রাখতে চাল আমদানিতে কড়াকড়ি আরোপ এবং রফতানিকে উৎসাহিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সরকার ১০ থেকে ১৫ লাখ টন চাল রফতানি করবে। চাল রফতানির জন্য ২০ থেকে ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত প্রণোদনা দেয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আর চাল আমদানি বন্ধে আমদানি শুল্ক বাড়িয়ে ৫৫ শতাংশ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ধানের বাজার মূল্যের বিষয়ে সরকারের গৃহীত কার্যক্রম বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী জানান, আগামীতে শ্রমিক সংকট মেটাতে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ এবং নন ইউরিয়া সারের দাম আরও কমানোর চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার।

তিনি আশা করেন, আমদানিতে কড়াকড়ি আরোপের পাশাপাশি চাল রফতানি কার্যক্রম শুরু হলেই বাজার ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসবে। আওয়ামী লীগ সরকার সব সময়ই কৃষকের পাশে ছিল এবং আগামীতেও থাকবে।

মন্ত্রী বলেন, কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণ, বাণিজ্যিকীকরণ এবং কৃষিখাতে সার্বিক সুশাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে কৃষিকে লাভজনক পেশায় উন্নীতকরণ এ সরকারের একটি রাজনৈতিক অঙ্গীকার। সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদান করে কৃষিকে লাভজনক করার লক্ষ্যে কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণ, অধুনিকীকরণ ও বাণিজ্যিকীকরণ করতে হবে।

ড. রাজ্জাক আরও বলেন, কৃষিকে লাভজনক করতে হলে এর যান্ত্রিকীকরণ করতেই হবে। কৃষি যান্ত্রিকীকরণের দায়িত্ব সরকারের। ইতোমধ্যে যান্ত্রিকীকরণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কৃষি প্রণোদনার ৩ হাজার কোটি টাকার কৃষিযন্ত্র ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামী বোরো মৌসুমের আগেই কৃষিযন্ত্র ক্রয় সম্পন্ন করা হবে।

মন্তব্য


অন্যান্য